বাংলার মানুষকে ভাতে মারতে চাইছে বিজেপি: অভিষেক

42

কলকাতা: বাংলার মানুষকে ভাতে মারতে চাইছে বিজেপি। বুধবার রানাঘাট উত্তরপূর্ব কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে এক জনসভায় এই মন্তব্য করেন যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, দেশে হু হু করে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে। ভিনরাজ্য থেকে আসা নেতাদের জন্য এই রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। অথচ কেন্দ্রীয় সরকার গরিব মানুষের কথা চিন্তা করছে না।

বিজেপিকে আক্রমণ করে অভিষেক বলেন, গত বছর টানা লকডাউন করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। বহু মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন। অথচ কেন্দ্রীয় সরকার বাংলার মানুষের জন্য কিছুই করেনি। তখন বাংলার মানুষের পাশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন। শীতলকুচির ঘটনা টেনে এদিন অভিষেক বলেন, কার নির্দেশে সেদিন গুলি চালিয়ে নিরীহ মানুষকে খুন করা হয়েছিল, তার তদন্ত হবে। কেউ ছাড়া পাবে না। বাংলায় যতদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আছেন, ততদিন বাংলার মানুষ সুরক্ষিত থাকবেন।

- Advertisement -

শরণার্থী অধ্যুষিত নদিয়া জেলায় প্রচারে গিয়ে এনআরসি ইস্যুতে ফের তোপ দাগেন অভিষেক। তিনি বলেন, অসমে ডবল ইঞ্জিন সরকার চলছে। কিন্তু সেখানকার ১৯ লক্ষ মানুষের নাম বাদ গিয়েছে। ওই লোকজন ডিটেনশন ক্যাম্পে রয়েছেন। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে এই রাজ্যের মানুষের সঙ্গেও একই আচরণ করবে। তাই বাংলার মানুষেরই ঠিক করা উচিত, তাঁরা অনিশ্চিত জীবন চান কি না। তৃণমূলের জয় বাংলা স্লোগানকে বিজেপি কটাক্ষ করছে। সেই প্রসঙ্গ তুলে এদিন যুব তৃণমূলের এই শীর্ষ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এখানে জয় বাংলা স্লোগান দিতে লজ্জা পান। অথচ কয়েদিন আগেই তিনি বাংলাদেশে গিয়ে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে এসেছেন। এরকম দ্বিচারিতা আগে কোনও প্রধানমন্ত্রীর দেখিনি।