লকডাউনের মধ্যে থানা থেকে হাপিস প্রায় ১০০০ বোতল মদ

প্রতীকী ছবি

ভোপাল: লকডাউনের মধ্যে থানার স্ট্রংরুম থেকে উধাও ৯৫০ বোতল দেশি মদ।

ঘটনায় দুই পুলিশকর্মীকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। মধ্যপ্রদেশের মিহোনা থানার এই ঘটনা সামনে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র সিং বলেন, আমার কাছে খবর রয়েছে মিহোনা থানার স্ট্রংরুম থেকে উধাও হয়ে যাওয়া মদ লকডাউনের মধ্যেই চড়া দামে বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে।

- Advertisement -

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে থানায় গিয়ে বাজেয়াপ্ত সামগ্রীর স্টক রেকর্ড দেখতে গিয়েই বিষয়টি নজরে আসে। দেখা যায় ১৮০ মিলিলিটারের ৯৫০টি দেশি মদের বোতল উধাও হয়ে গিয়েছে। এই ঘটনায় থানার আইসি ইন্সপেক্টর অমর সিংসিকারওয়ার ও স্ট্রংরুমের দায়িত্বে থাকা হেড কনস্টেবল রমেশ বনশলকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। মহকুমা পুলিশ আধিকারিককে পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

জেলা পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, গত চার বছরে মিহোনা থানা ১৮০ মিলিলিটারের ৩৪০০টি দেশি মদের বোতল বাজেয়াপ্ত করে। এর মধ্যে ২২০০টি বোতল স্থানীয় কোর্টের স্ট্রংরুমে রাখা হয়। বাকি ১২০০টি বোতল থানাতেই রাখা রাখা হয়েছিল। পরিদর্শনের সময় এই ১২০০টি বোতলের মধ্যে মাত্র ২৫০টি বোতল দেখতে পেয়েছেন বলে জানান পুলিশ সুপার। তখনই বিষয়টি সুপারের নজরে আসে। এরপরই কড়া শাস্তির মুখে পড়েন ওই দুই পুলিশকর্মী।

লকডাউনের জেরে মধ্যপ্রদেশে মদের দোকান বন্ধই রয়েছে। এই সুযোগকেই কাজে লাগান ওই দুই পুলিশকর্মী। সূত্রের খবর, মদ্যপায়ীরা প্রায় চারগুন বেশি দাম দিয়ে এই মদের বোতলগুলি কিনেছে।