সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড সুষমা জবাব দিলেন টুইটারেই পোল করে

173

নয়াদিল্লি, ১ জুলাইঃ সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড হওয়ায় ক্ষোভ উগরে দিলেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। তনভি শাহ নামে এক মহিলাকে বিতর্কিত পরিস্থিতিতে পাসপোর্ট ইশ্যু করা নিয়ে বিদেশমন্ত্রীকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণ করেন অনেকে। তার জবাবে সুষমা ভোটাভুটির ব্যবস্থা করেছিলেন সেই সোশ্যাল মিডিয়াতেই।

সুষমা লেখেন, বন্ধুরা, আমি কিছু টুইটে লাইক দিয়েছি। শেষ কদিন ধরে এমনটা ঘটছে। আপনারা কি এ ধরনের টুইট সমর্থন করেন? দয়া করে রিটুইট করুন। ভোটে হ্যাঁ ও না-এর মধ্যে বেছে নিতে হবে। শেষ ১৫ ঘণ্টায় ৫০,০০০-এর বেশি মানুষ ভোট দিয়েছেন। ৫৮ শতাংশ না বলেছেন, ৪২ শতাংশ হ্যাঁ।

- Advertisement -

লখনউয়ে পাসপোর্ট করাতে যাওয়া তনভি শেঠ ও তাঁর স্বামীর সঙ্গে জনৈক পাসপোর্ট আধিকারিক দুর্ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ। তনভির স্বামী মুসলিম হওয়ায় প্রশ্ন ওঠে ধর্মের ওপর। এ নিয়ে টুইটারে সুষমার কাছে অভিযোগ করেন তনভি। এরপর ওই আধিকারিককে বদলি করে দেওয়া হয় এবং পাসপোর্ট পান তনভি ও তাঁর স্বামী।

কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের অভিযোগ, তনভি ও তাঁর স্বামীর আবেদনে গন্ডগোল ছিল, সে কারণেই ওই আধিকারিক তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করছিলেন। প্রশ্ন ওঠে, স্বাভাবিক নিয়ম না মেনে দ্রুত তাঁদের জন্য পাসপোর্ট ইশ্যু করার কারণ কী। এ ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করে উত্তর প্রদেশ সরকার। তদন্তে জানা যায়, পাসপোর্টের আবেদন করার সময় তনভি বেশ কিছু তথ্য ভুল দিয়েছেন, তাঁদের পাসপোর্ট বাতিল হয়ে যেতে পারে।

ট্রোলদের শিক্ষা দিতে আপত্তিকর টুইটগুলি লাইক ও রিটুইট করেন সুষমা।