অন্তঃসত্ত্বা বৌদিকে খুনের অভিযোগ দেওরের বিরুদ্ধে

313

ধুলিয়ান: পারিবারিক বিবাদের জেরে অন্তঃসত্ত্বা বৌদিকে খুনের অভিযোগ উঠল দেওরের বিরুদ্ধে। সোমবার ঘটনাটি ঘটে মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ান পুরসভার ১৯ নং ওয়ার্ডের তারাবাগান এলাকায়।

স্থানীয় এবং পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতার নাম রিমা খাতুন। বছর খানেক আগে রিমার বিয়ে হয় পেশায় রাজমিস্ত্রি রাহুল শেখের সঙ্গে। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই রিমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাঁর ওপর শারিরীক এবং মানসিকভাবে অত্যাচার চালাতেন। পরিবারে ভাই রুবেলের থেকে দাদা রাহুলের ইনকাম কম হওয়ার কারণে রাহুলকেও অত্যাচার সহ্য করতে হত। ইচ্ছা থাকলেও কোনওভাবে স্ত্রীর হয়ে প্রতিবাদ করতে পারতেন না তিনি। এই নিয়ে বেশ কয়েকবার এলাকায় বিভিন্ন সময় সালিশি সভা হলেও তাতেও সমস্যা মেটেনি।

- Advertisement -

স্থানীয়রা জানান, গতকাল রাতে তাঁদের অশান্তি চরমে ওঠে। আজ সকালে বাড়িতে যখন কেউ ছিল না তখন রুবেল ধারালো অস্ত্র দিয়ে বৌদির পেটে আঘাত করে। ঘটনাস্থলেই রিমার মৃত্যু হয়। ঘটনার পর সেখান থেকে রুবেল পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে সামশেরগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জঙ্গিপুর মহকুমা হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এই বিষয়ে মৃতার স্বামী রাহুল শেখ জানিয়েছেন, ‘পরিবারে কম টাকা দিতে পারার জন্য সব সময় কথা শুনতে হত স্ত্রী এবং আমাকে। তার ওপর লকডাউনের কারণে বেকার হয়ে পড়েছিলাম। স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা জেনে নিজেকে থামিয়ে রাখতাম। ভেবেছিলাম পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক হলে স্ত্রীকে নিয়ে অন্য কোথাও আলাদা হয়ে থাকব। কিন্তু এই ধরনের ঘটনা ঘটবে তা ভাবতেও পারিনি।’ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।