দাবি মোতাবেক চাঁদা না দেওয়ায় বাইক আরোহীদের মারধোর, পলাতক অভিযুক্তরা

102

বর্ধমান: চাঁদা আদায়ের নামে জুলুম। অভিযোগ, দাবি মোতাবেক চাঁদা না দেওয়ায় দুই বাইক আরোহীকে মারধোর করা হয়। ঘটনাটি শুক্রবার রাতের পূর্ব বর্ধমানের গলসি এলাকার। ঘটনার প্রেক্ষিতে রাতেই গলসি থানায় অভিযোগ জানান আক্রান্তরা। অভিযুক্তদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে খবর, শেখ রমজান আলি ও তাঁর ভাই শেখ শের আলির বাড়ি আউশগ্রাম থানার পিচকুড়ি এলাকায়। শুক্রবার তাঁরা মোটরবাইকে চেপে গলসির বাহিরঘন্যা গ্রামে বোনের বাড়ি গিয়েছিলেন। সন্ধ্যা নাগাদ কিছু গহনা ও টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন তাঁরা। অভিযোগ সেসময় গলসির কুরকুবা শ্মশান সংলগ্ন এলাকায় একদল যুবক সরস্বতী পুজোর চাঁদা চেয়ে তাঁদের পথ আটকায়। এরপর যুবকরা লাথি মেরে রমজান আলি ও তাঁর ভাইকে বাইক থেকে ফেলে দেয়। এমনকি দাবি মোতাবেক চাঁদা না দেওয়ায় রমজান আলি ও তাঁর ভাইকে বাঁশ দিয়ে মারধোর করার পাশাপাশি মুখেও ঘুসি মারে বলে অভিযোগ করেন তাঁরা। চাঁদা আদায়ের নামে এই জুলুমবাজির ঘটনা জানাজানি হতেই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। গলসি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছোতেই ওই যুবকরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
আহত শের আলি জানিয়েছেন, ’দাবি মোতাবেক আমরা চাঁদা দিতে রাজি ছিলাম না। যুবকরা চাঁদার দাবিতে জুলুম শুরু করে। আমাদের মারধোরও করা হয়।’