কুলটির নিষিদ্ধপল্লিতে প্রশাসনের অভিযান, উদ্ধার ৩৫ জন নাবালিকা

180

আসানসোল: ওয়েস্ট বেঙ্গল কমিশন ফর প্রোটেকশন অফ চাইল্ড রাইটসের (ডবলুবিসিপিসিআর) চেয়ারপার্সনের উপস্থিতিতে নিয়ামতপুরের লছিপুর যৌনপল্লিতে বুধবার রাতে অভিযান চালানো হয়। নাবালিকাদের দিয়ে এখানে যৌন ব্যবসা করানো হচ্ছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে পশ্চিম বর্ধমান জেলা প্রশাসন ও আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ এই অভিযান চালায়। অভিযানে প্রায় ৩৫ জন নাবালিকাকে উদ্ধার করা হয় বলে জানা গিয়েছে। পাশাপাশি বেশ কয়েকজন যুবককেও আটক করা হয়েছে।

অভিযানের পরে ডব্লিউবিসিপিসিআর চেয়ারপার্সন অনন্যা চক্রবর্তী বলেন, ‘খবর ছিল যে, এই যৌনপল্লিতে নাবালিকাদের দিয়ে ব্যবসা করানো হচ্ছে। তার ভিত্তিতে তদন্ত করে এই অভিযান চালানো হয়। উদ্ধার হওয়া নাবালিকাদের হেপাজতে নেওয়া হয়েছে। তাদের পরীক্ষা করার পরে খোঁজ নিয়ে বাড়িতে পাঠানো হবে।‘

- Advertisement -

জেলা শাসক বিভু গোয়েল বলেন, ‘কমিশনের তথ্যের ভিত্তিতে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের একটি দল গঠন করে তদন্ত করছিল। তারপরেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।‘

পুলিশ কমিশনার অজয় ​​কুমার ঠাকুর বলেন, ‘নাবালিকাদের পতিতাবৃত্তি করানো হচ্ছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়েছে। উদ্ধার হওয়া নাবালিকাদের বয়স যাচাই করার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।‘