বামনগোলায় দোকান-বাজার খোলার সময়সীমা বেঁধে দিল প্রশাসন

343

স্বপনকুমার চক্রবর্তী, বামনগোলা: করোনা মোকাবিলায় প্রশাসনিকভাবে মাইকিং করে বামনগোলা ব্লকজুড়ে বেঁধে দেওয়া হল দোকান বাজারের সময়সীমা। ফুটপাতে দোকান বাজার বসার নিষেধাজ্ঞা সহ ঘোষণা করা হল সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং মাস্ক ব্যবহারের কড়াকড়ির কথাও। বামনগোলা থানার পুলিশ প্রশাসনের তরফে ঘোষণা করা হয়, ৪ জুলাই অর্থাৎ শনিবার থেকে এই বিধি কার্যকর করা হবে। এই নিয়ম বজায় থাকবে ৩১ জুলাই পর্যন্ত। অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, সারা বিশ্বেই এখন আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস। কোভিড ১৯ বিস্তৃত হয়ে সংক্রমিত করেছে দেশের প্রচুর মানুষকে। অনেকে সুস্থ হলেও সংক্রমিত হয়ে ঘটছে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটছে। রাজ্য এবং মালদা জেলার বিভিন্ন এলাকায়ও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। তাই করোনা মোকাবিলায় বামনগোলা পুলিশ প্রশাসনের তরফে এই মাইকিং করা হয়।

- Advertisement -

এদিন মাইকিং করে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়, ৪ জুলাই থেকে সকাল ৬টা থেকে ১০টা পর্যন্ত বামনগোলা ব্লকের সমস্ত জায়গায় সবজি বাজার খোলা থাকবে। আর ওষুধের দোকান বাদে অন্য সমস্ত দোকান খোলা থাকবে সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত। এছাড়া ফুটপাতে কোনও দোকান বসবে না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল সহ মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক। কেউ নিয়ম ভঙ্গ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের ঘোষণা করা হয়েছে।

করোনা মোকাবিলায় প্রশাসনিক উদ্যোগে এই ঘোষণায় খুশি বিভিন্ন মহলের মানুষজন। তাঁদের বক্তব্য, লকডাউন চলাকালীন এবং পরেও দেখা গিয়েছে, সামাজিক দূরত্ববিধি বজায় না রেখে দোকান বাজারে অযথা ভিড় করা এবং পুলিশ দেখলেই মাস্ক পড়া এবং পুলিশ চোখের আড়াল হলেই মাস্ক চিবুক বা কানে ঝুলিয়ে রাখা। এছাড়াও লকডাউন শিথিল হতেই বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত রাস্তা ঘাটে বাড়ছিল দেদার আড্ডা। বিভিন্ন মহলের মতে প্রশাসনিক উদ্যোগে এই বিধি কড়াকড়িভাবে কার্যকর করা সম্ভব হলে করোনা মোকাবিলায় অনেকটাই এগিয়ে থাকা যাবে। এখন দেখার প্রশাসনিক এই তৎপরতা কতটা কার্যকর হয়।