করোনার আবহে চিনা আফ্রিকান সোয়াইন ফ্লু ছড়াল ভারতে

626

নয়াদিল্লি: কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারিকা মারণ করোনা ভাইরাসে কাবু৷ এই পরিস্থিতির মধ্যেই চিন থেকে আমদানি হল আরও এক ভাইরাস৷ আফ্রিকান সোয়াইন ফ্লু’র নামে এই ভাইরাস ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়েছে বাংলার প্রতিবেশী রাজ্য অসমে৷ মূলত এই ভাইরাস আক্রমণ করেছে শূকরের শরীরে৷ অসমে এখনও পর্যন্ত প্রায় আড়়াই হাজার শূকর আফ্রিকান সোয়াইন ফ্লু’তে মৃত্যু হয়েছে৷ অসম সরকার ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসের পরীক্ষা শুরু করেছে৷ একই সঙ্গে প্রতিবেশী রাজ্যগুলিকেও সতর্ক করা হয়েছে৷

দেশজুড়ে মারণ করোনা ভাইরাসের কোপে জনজীবন বিপর্যস্ত৷ এরই মধ্যে অসমে আরও একটি সংক্রামক ব্যাথি হু হু করে বাড়ছে৷ ওই রাজ্যে আফ্রিকান সোয়াইন ফ্লু’র প্রাদুর্ভাব বাড়ছে৷ রোগের দেখা মিলতেই এখনও পর্যন্ত ২৫০০টি শূকরের মৃত্যু হয়েছে৷ রাজ্যে অবিলম্বে শূকর নিধনের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ তবে, রাজ্য সরকার শূকর নিধন না করে বিকল্প ব্যবস্থায় অতি সংক্রামক এই রোগ প্রতিরোধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ অসমের পশুপালন মন্ত্রী অতুল বোরা সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ভোপালের ন্যাশনাল ইনস্টিউট অফ হাই সিকিউরিটি অ্যানিম্যাল ডিজিস (NIHSAD) নিশ্চিত করেছে যে, এটি আফ্রিকান সোয়াইন ফ্লু (এএসএফ)৷ কেন্দ্রীয় সরকারি জানিয়েছে যে, দেশে এই রোগের প্রথম ঘটনা এটি৷ আর এই ভাইরাস এসেছে চিন থেকেই৷

- Advertisement -

অসম সরকার পরিচালিত ২০১৯ সালের সমীক্ষা অনুযায়ী, রাজ্যে শূকরের সংখ্যা ২১ লক্ষ৷ তবে সেই সংখ্যাটি বেড়ে প্রায় ৩০ লক্ষ ছাডিয়ে গিয়েছে৷ সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই শূকর না মেরে ফেলে কী করে বাঁচানো যায়, তা নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা চলছে৷ এই রোগের ঝুঁকির মধ্যে থাকা শূকরদের মৃত্যুর হার প্রায় ১০০ শতাংশ৷ ফলে, সেই শূকরগুলোকে বাঁচানোর চেষ্টা চলছে, যারা এখনও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি৷ তবে, সরকারে দাবি এই রোগ এখনও খুব বেশি ছড়াতে পারেনি৷