নাবালিকাকে গাড়িতে তুলছে পুলিশ। ছবি : রাহুল মজুমদার

শিলিগুড়ি, ৪ জুলাই : ধর্ষককে গ্রেফতার করতে হবে, এই দাবি নিয়ে ধর্ষকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসেছিল নির্যাতিতা নাবালিকা। পুলিশ এসে অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পরিবর্তে ওই নাবালিকাকে মারধর করে টেনে হিঁচড়ে থানায় গেল। ঘটনাটি ঘটেছে মাটিগাড়ার পতিরামজোতে। অভিযোগের তির নিউ জলপাইগুড়ি ও মাটিগাড়া থানার পুলিশের বিরুদ্ধে।

গত ৪ জুন ওই নাবালিকা নিউ জলপাইগুড়ি থানার অভিযোগ করে, পতিরামজোতের বাসিন্দা এক যুবক তাকে ধর্ষণ করেছে। নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ ওই যুবকের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করে। কিন্তু এক মাস কেটে গেলেও ওই যুবককে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ওই নাবালিকা জানিয়েছে, বুধবার রাতে ওই যুবকের বাবা তাকে দেখা করতে বলে ফোন করেন। বৃহস্পতিবার সকালে ওই নাবালিকা পতিরামজোতে গেলেও ওই যুবকের বাবা ছিলেন না। এরপরই ওই নাবালিকা যুবকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে। খবর পেয়ে প্রথমে নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ গিয়ে ওই নাবালিকাকে বোঝানোর চেষ্টা করে। কিন্তু নাবালিকা ধরনা তুলতে রাজি না হওয়ায় এলাকায় যায় মাটিগাড়া থানার মহিলা পুলিশকর্মীরা। তাঁরা গিয়েই ওই নাবালিকাকে মারধর করতে শুরু করেন। তারপর টেনে হিঁচড়ে ওই নাবালিকাকে গাড়িতে তুলে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার পরই উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। অভিযুক্ত যুবকের বাড়ি ঘিরে রেখেছেন স্থানীয়রা। ঘটনায় পুলিশ ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।