রেকর্ড ভেঙে কিউয়ি-বধে বাবররা

শারজা : ভারতের বিরুদ্ধে জয় উপভোগ করো। কিন্তু আবেগে ভেসে যেও না। টিম হোটেলে সতীর্থদের সতর্কবাণী অধিনায়ক বাবর আজমের।

ম্যাচের পরও বলেছিলেন, ভারতকে হারানো দলের আত্মবিশ্বাস অনেকখানি বাড়িয়ে দেবে। তবে কাজ এখনও বাকি। আরও লম্বা রাস্তা পাড়ি দিতে হবে।

- Advertisement -

ভারত-ম্যাচের হ্যাংওভার কাটার আগে কাল ফের মাঠে পাকিস্তান। প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। মওকা মওকা কটাক্ষকে ভারত-বধে ঠান্ডা ঘরে পাঠিয়ে দিয়েছেন বাবরা। কালও বদলার ম্যাচ। পাকিস্তানে পা রেখেও না খেলে দেশে ফিরেছিল নিউজিল্যান্ড। সেই অপমানের জবাব দেওয়ার ম্যাচ।

পিসিবি প্রধান রামিজ রাজা প্রকাশ্যেই বলেছিলেন, বিশ্বকাপে জবাব দিতে হবে। ভারত আর নিউজিল্যান্ড- দুটো ম্যাচে জয় চাই। প্রথম লক্ষ্যপূরণ ভারতকে ১০ উইকেটে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন বাবররা। সেই উদ্দীপনা, আত্মবিশ্বাসকে সঙ্গী করে মঙ্গলবার শারজায় মিশন-নিউজিল্যান্ড।

ভারত বধ ও আমিরশাহিতে খেলার অভিজ্ঞতার নিরিখে পাকিস্তান কিছুটা হলেও অ্যাডভান্টেজ পজিশনে। দুবাইয়ে বদলে কাল ম্যাচের মঞ্চ শারজা। মঞ্চ বদলালেও ফেভারিট হিসেবেই নামছে বাবর ব্রিগেড। নিউজিল্যান্ড সেখানে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে জোড়া হারের চাপ নিয়ে।

শারজায় অনুষ্ঠিত গত বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ হাইস্কোরিং হয়েছে। পিচ কিছুটা গতিমন্থরতায় ভুগলেও দুই এশীয় দলের ব্যাটার সমস্যা হয়নি। বাবররাও এই ধরনের পিচে অভ্যস্ত। কিন্তু নিউজিল্যান্ডাররা ক্ষেত্রে তা বলা যাচ্ছে না। আইপিএলে উইলিয়ামসন সহ একঝাঁক কিউয়ি তারকা এখানে খেললেও ছাপ রাখতে পারেননি।

বিশ্বকাপ অবশ্য আলাদা। হিসেব বদলে দেওয়ার মতো অস্ত্রও হাজির কিউয়ি ব্রিগেডে। বিশেষত সাউদি-বোল্ট-ফার্গুসনকে নিয়ে গড়া পেস ব্রিগেড। স্পিন বিভাগে স্যান্টনার-সোধির অভিজ্ঞতা পাক-ব্যাটারদের চ্যালেঞ্জে ফেলবে।