তৃণমূলের সভা শেষেই দলীয় কার্যালয় সংলগ্ন মাঠ শুদ্ধিকরণ বিজেপির

93

হরিশ্চন্দ্রপুর: বিজেপির নির্বাচনী কার্যালয়ের পাশেই হয়েছিল তৃণমূলের জনসভা। সেই সভা শেষ হতেই ঝাড়ু হাতে মাঠে হাজির বিজেপি নেতা-কর্মীরা। গোটা মাঠ পরিষ্কার করার পাশাপাশি গঙ্গাজল ছিটিয়ে শুদ্ধিকরণের কাজ সারলেন তাঁরা। সোমবার হরিশ্চন্দ্রপুর টাউন লাইব্রেরি মাঠে ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন শ্রম দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী গোলাম রব্বানি। প্রার্থী ঘোষনা না হলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে ওই নির্বাচনী জনসভা হয়।

বিজেপির অভিযোগ, জনসভার পর তৃণমূল মাঠ পরিষ্কার করেনি। চারদিকে চা’য়ের কাপ, প্লাস্টিক, আবর্জনা পড়েছিল। মাঠের পাশেই রয়েছে তাদের নির্বাচনী কার্যালয়। সেখানে সারাদিনই ধরেই কর্মীদের আনাগোনা রয়েছে। প্রায় প্রতিদিন কর্মীসভাও হয়। কিন্তু সকাল গড়ালেও তৃণমূল মাঠ পরিষ্কার করেনি। তাই তারাই মাঠে নামেন।

- Advertisement -

হরিশ্চন্দ্রপুর বিজেপির মণ্ডল সভাপতি রূপেশ আগারওয়াল বলেন, ‘একুশের বিধানসভা ভোটের আগে একটা নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু করেছিলাম। তৃণমূল কংগ্রেসের শিক্ষা এমন যে কার্যক্রমের পর মাঠ নোংরা করে রেখে গিয়েছে। আজ আমরা সেই জায়গা পরিষ্কার করে গঙ্গাজল ছিটিয়ে পবিত্র করেছি।’

হরিশ্চন্দ্রপুর তৃণমূল কংগ্রেস যুব সভাপতি জিয়াউর রহমান বলেন, ‘এটা নাটক ছাড়া আর কিছু না। একটা জনসভা জনস্রোতে পরিণত হয়েছে, যেটা দেখে ওরা ভয় পেয়েছে। হরিশ্চন্দ্রপুরে তৃণমূল-কংগ্রেস আসছে। কাল যতটুকু সম্ভব হয়েছে পরিষ্কার করা হয়েছে।’