আবারও রেকর্ড গড়ল ইনডং চা বাগান

294

নাগরাকাটা: এ যেন ইউক্রেনের বিখ্যাত পোল ভোল্টার সের্গেই বুবকারের নিজের রেকর্ড বারবার নিজেই ভাঙার মতো কাহিনী। বুবকা রেকর্ড ভেঙেছিলেন ৩৫ বার। ঠিক ওই সংখ্যক না হলেও মেটেলির ইনডং চা বাগানের ক্ষেত্রে সংখ্যাটি ১০-এ পৌঁছে গেল। এবারে ওই বাগানের উৎপাদিত চা নিলামে বিকোলো কিলো প্রতি ১ হাজার টাকা দরে। তাও সেটা শীতের শুখা মরসুমে তৈরি। যা কিনা শিলিগুড়ি চা নিলাম কেন্দ্রের ৪৫ বছরের ইতিহাসে এটাই এখনও পর্যন্ত প্রাপ্ত সর্বোচ্চ দাম।

শুক্রবার নিলাম কেন্দ্রের ৪ নম্বর সেলে ইনডং ওই দাম পায়। এর আগে গত ২০ জানুয়ারি চলতি বছরের ৩ নম্বর সেলে ইনডং-র চায়ের একটি প্রোডাক্ট নিলামে ওঠে কিলো প্রতি ৭২৬ টাকায়। চা মহল বলছে শীতের শুখা মরসুমের উৎপাদিত চায়ের এমন নজিরবিহীন দাম প্রাপ্তির বিষয়টি ডুয়ার্স-তরাইয়ের গোটা চা শিল্প মহল্লার কাছেই একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত ও কার্যকরী বার্তা। বাগানের ম্যানেজার রজত দেব বলেন, ‘এই সাফল্য শ্রমিক-মালিক যৌথ প্রচেষ্টার ফল।’

- Advertisement -

মালিকপক্ষের সংগঠন ডিবিআইটিএ-র সম্পাদক সঞ্জয বাগচি বলেন, ‘পরিচালকদের অভিনন্দন জানাই। এটা ডুয়ার্সের কোন চা বাগানের নিরিখে প্রকৃত অর্থেই একটি অনন্য সাধারণ দৃষ্টান্ত।’

উৎপাদনের গুনগত উৎকর্ষতার যে স্বীকৃত মানদন্ড রয়েছে সেগুলির ওপর ভিত্তি করে ডুয়ার্সে একমাত্র ইনডং এর কাছেই প্রয়োজনীয় ৩ রকমের সংশাপত্র রয়েছে বলে বাগান পরিচালকরা জানিয়েছেন। এর আগে ইনডং-র একাধিক ব্র‌্যান্ডের চা বিক্রি হয়েছিল যথাক্রমে কিলো প্রতি ৪৭২, ৪৭৯,৫০২, ৫০২, ৫২৬, ৫৭৬, ৭০৬ টাকায়। ২০১৯ ও ২০২০-এ ওই বাগানটি দাম পেয়েছিল কিলো প্রতি যথাক্রমে ৩৬৩ ও ৫১১ টাকা। সেটা ছিল সে সময়ের সর্বকালীন রেকর্ড। শিলিগুড়ি চা নিলাম কেন্দ্রের ভাইস চেযারম্যান প্রবীর শীল বলেন, ‘গুনগতমানের সাথে আপোষ না করলে ডুয়ার্সের চা-ও যে এরকম দাম পেতে পারে ইনডং সেটাই বারবার প্রমাণ করছে।’