স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্মীদের তালাবন্দি করে বিক্ষোভ

292

জয়গাঁ, ২২ জানুয়ারিঃ করোনা সংক্রমণের চরম সময়ে স্বাস্থ্য দপ্তর বিভিন্ন এলাকায় সার্ভে করার জন্য কর্মী নিয়োগ করেছিল। ওই কর্মীরা তাঁদের বকেয়া ভাতা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ তুলেছেন। অভিযোগকে কেন্দ্র করে, শুক্রবার জয়গাঁর সুভাষপল্লি এলাকায় একটি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্মরত স্বাস্থ্য কর্মীদের তালাবন্দি করে তুমুল বিক্ষোভ দেখানো হল। আন্দোলনরত অস্থায়ী কর্মীদের অভিযোগ, তাঁরা দীর্ঘ দিন কাজ করলেও, এখন পর্যন্ত কোনও ভাতা তাঁরা পাননি।

বকেয়া ভাতার জন্য বিভিন্ন দপ্তরে আবেদন জানানো হয়েছে। তবে, তাতে কোনও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ ওই কর্মীদের। ঘটনায় ওই এলাকার স্বাস্থ্য কর্মী মহলে চাঞ্চল্য ছড়ায়। প্রায় দুই ঘণ্টা পর খবর পেয়ে জয়গাঁ ২ নম্বর গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান ফূর্বা লামা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। আন্দোলনকারীদের ভাতা মিটিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা তালা খুলে বিক্ষোভ বন্ধ করেন।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, করোনা সংক্রমণ যে সময় চরম পর্যায়ে পৌঁছেছিল, সেই সময় কালচিনি ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তর জয়গাঁ উন্নয়ন পর্ষদের মাধ্যমে ওই কর্মীদের অস্থায়ীভাবে নিয়োগ করে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে সার্ভে করার জন্য ওই কর্মীরা কাজ করেন। গত নভেম্বর মাসে তাঁদের কাজ শেষ হয়। আন্দোলনকারীরা বলেন, করোনা সংক্রমনের ঝুঁকি মাথায় নিয়ে আমরা সেই সময় কাজ করেছি। কাজ বন্ধ হলেও, এখনও ভাতা দেওয়া হয়নি। তাই আমরা বকেয়া ভাতার দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছি।

অন্যদিকে, জয়গাঁ উন্নয়ন পর্ষদের অ্যাসিস্ট্যান্ট এগজিকিউটিভ অফিসার ভূষণ শেরপা বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্মীদের টাকা ইতিমধ্যেই চলে এসেছে। তবে, যাঁরা কাজ করেছেন, তাঁদের নথিতে কিছু সমস্যা রয়েছে। নথি সংশোধনের জন্য ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে নথি সংশোধন করে পাঠালেই, কর্মীদের বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে। কালচিনির ব্লক স্বাস্থ্য আধিকারিক ডা: সুভাষ কর্মকার বলেন, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখা হচ্ছে।