ট্রাকের চাপায় বেসরকারি কারখানার কর্মীর মৃত্যু, ক্ষতিপূরনের দাবিতে বিক্ষোভ

159

আসানসোল, ২৭ অগাস্টঃ আসানসোলের জামুড়িয়া থানার বিজয়নগর শিল্পতালুকে একটি বেসরকারি কারখানার গেটের সামনে একটি ১৪ চাকার ট্রাকের তলায় চাপা পড়ে ১ কর্মীর মৃত্যু হল। মৃত কর্মীর নাম লাট্টু রুইদাস (৩৬) জামুড়িয়া থানার দামোদরপুর রুইদাস পাড়ার বাসিন্দা ছিলেন। শুক্রবার ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিল্পতালুকে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। দুর্ঘটনার পর এলাকায় বাসিন্দা ও মৃত কর্মীর পরিবারের সদস্যরা ঘটনার প্রতিবাদ ও ক্ষতিপূরণের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ দেখান।

অভিযোগ, কারখানার নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁদের উপর চড়াও হয়ে মারধর করে। বিক্ষোভকারীদের দাবি, কারখানার নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে থাকা বেশ কয়েকজন যুবক তাঁদের লক্ষ্য করে, বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়। খবর পেয়ে জামুড়িয়া থানার পুলিশ এলাকায় পৌঁছায়। বেশ কিছুক্ষণের প্রচেষ্টায় পুলিশ কর্মীরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মৃতদেহ উদ্ধার করে, ময়নাতদন্তের জন্য আসানসোল জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

- Advertisement -

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মৃত কর্মীর পরিবারের সদস্যদের ক্ষতিপূরণের টাকা নিয়ে মীমাংসা না হওয়ায়, মৃতদেহ ময়নাতদন্ত করা যায়নি। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্যদিনের মতো এদিন সকালে বাড়ি থেকে সাইকেল নিয়ে লাট্টু বাবু জামুড়িয়ার বিজয়নগর শিল্পতালুকে একটি বেসরকারি কারখানার কাজে যাচ্ছিলেন। সেই সময় ওই কারখানার ঠিক গেটের সামনে কারখানার ১৪ চাকার একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাঁকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনা জানাজানি হতেই, এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

মৃত যুবকের পরিবারের সদস্য, এলাকার বাসিন্দা ও সহকর্মীরা ক্ষতিপূরণ ও ঘটনার প্রতিবাদে কারখানায় বিক্ষোভ দেখান। তাঁদের দাবি, শিল্পতালুকের রাস্তা বেহাল। বড় বড় গাড়ি চলাচল করে। এরজন্যই এই ঘটনা ঘটেছে। যদিও, বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ আচমকা কারখানার নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁদের উপর চড়াও হয়। মারধর করার পাশাপাশি, তাঁদের লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়ার পাশাপাশি, নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে থাকা কিছু যুবক তাঁদের লক্ষ্য করে গুলিও চালায়। ঘটনা প্রসঙ্গে কারখানা কর্তৃপক্ষ কোনও মন্তব্য করেনি।