বেহাল জাতীয় সড়ক মেরামতির দাবি তুলে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ

297

ফাঁসিদেওয়া, ১৫ সেপ্টেম্বরঃ বেহাল ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক এখন চৌবাচ্চায় পরিণত হয়েছে। আর তার জেরেই পথ দুর্ঘটনা বাড়ছে ফাঁসিদেওয়া ব্লকের বিধাননগরে। বিগত কয়েকমাস ধরেই গোটা জাতীয় সড়ক খানাখন্দে ভরে উঠেছে। সেই গর্তে বৃষ্টির জল জমেছে। বৃষ্টির জমাজলের গভীরতা বুঝতে না পেরে হামেশাই পথ দুর্ঘটনা ঘটে চলেছে। নিত্যযাত্রীরাও দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। জাতীয় সড়ক মেরামতির দাবি তুলে মঙ্গলবার বিধাননগর জাতীয় সড়ক রক্ষা কমিটির সদস্যরা পথ অবরোধ করলেন। পাশাপাশি, রাস্তার জমা জলে ধানের চারা রোপন করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। অভিযোগ, দীর্ঘদিন থেকেই সড়ক মেরামতির দাবি তোলা হয়েছে। তবে, জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ এবিষয়ে উদাসীন। সেই কারণেই এদিন বিধাননগরের বাসিন্দারা বিক্ষোভে ফেঁটে পড়েন। তাঁদের দাবি, অবিলম্বে সড়ক মেরামত করতে হবে। কেন জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা, তানিয়েও প্রশ্ন উঠছে।

এদিকে, কমিটির পক্ষে বাপন দাসের অভিযোগ, নিয়মিত রোড ট্যাক্স নেওয়া হলেও, জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ পথযাত্রীদের সুরক্ষা নিয়ে উদাসীন হয়ে রয়েছেন। এটা কোনও ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। তাঁরা আরও জানান, অবিলম্বে রাস্তার স্থায়ী মেরামত করতে হবে। না হলে সড়কের দৈনন্দিন দুর্ঘটনা ঠেকানো যাবে না। ফাঁসিদেওয়ার বিডিও সঞ্জু গুহ মজুমদার এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে এখনও অভিযোগ পাইনি। তবে, খোঁজ নিয়ে দেখে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলব। দ্রুত সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ করা হবে। যদিও, অবরোধের পর সন্ধ্যা নাগাদ জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ বেড মিশলি ফেলে রাস্তার গর্ত ভরাট করে অস্থায়ীভাবে সমাধানের চেষ্টা করেছে বলে স্থানীয় সূত্রে খবর পাওয়া গিয়েছে।

- Advertisement -

দীর্ঘ কয়েকমাস থেকে বিধাননগর থেকে ঘোষপুকুরগামী ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক বেহাল হয়ে গিয়েছে। বৃষ্টির জল গর্তে জমে দৈনন্দিন যাতায়াত দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। বিধাননগর তদন্ত কেন্দ্রের উলটো দিকে বিরাট গর্ত তৈরি হয়েছে। সেখানে এখন এক হাঁটু জল জমছে। রাস্তায় জলের গভীরতা বুঝতে না পেরে প্রায়শই ওই জায়গাতেই দুর্ঘটনা ঘটছে। সরকারি বাস যাওয়ার সময় একদিকে কাঁত হয়ে পড়ছে। চালকের পাশাপাশি, যাত্রীদেরও জীবনের ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে। সেই কারণে একাধিকবার সড়ক মেরামতের দাবি তোলা হয়েছিল ঠিকই কিন্তু, কিচ্ছু লাভ হয়নি। এদিন রোগি নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তার গর্তে অ্যাম্বুলেন্স আটকে যায়। এরপর বিধাননগর জাতীয় সড়ক রক্ষা কমিটির সদস্যরা সেটিকে ঠেলে পার করেন। সদস্যরা পরে জমা জলে ধানের চারা রোপণ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। তাঁরা প্রায় ঘণ্টাখানেক পথ অবরোধও করেন। এরজেরে যান চলাচল সাময়িকভাবে ব্যহত হয়।