দোষ না করলে ভয়ের কি আছে, অভিষেকের বাড়িতে সিবিআই হানা প্রসঙ্গে অগ্নিমিত্রা

15

আসানসোল, ২২ ফেব্রুয়ারিঃ যদি কোনও দোষ না করে থাকেন, তাহলে ভয় পাওয়ার কি আছে? নোটিশ আসতেই পারে। তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে কয়লা পাচারের মামলায় সিবিআইয়ের নোটিশ দেওয়া প্রসঙ্গে সোমবার আসানসোলে এমনই মন্তব্য করলেন বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। সোমবার “বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও” কমিটির পক্ষ থেকে আসানসোলের রেলপারের ডিপোপাড়া এলাকায় অনুষ্ঠানে বিজেপির মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন “বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও” এর রাজ্য আহ্বায়ক সোনা ভদ্রা, দ্বিতীয়া কৌর, আসানসোল মহিলা মোর্চা জেলা সভাপতি পাপিয়া পাল সহ অন্যান্যরা।

অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে অগ্নিমিত্রা পাল আরও বলেন, কয়লা ও গোরু পাচারের মামলায় সিবিআই ঠিক পথে তদন্ত করছে বলেই তৃণমূল কংগ্রেস ভয় পাচ্ছে। এই পাচার যে এক বা দু’জনের মধ্যে দিয়ে হয়নি, তা সবাই বুঝতে পারছেন। এর পেছনে অনেকেই আছেন। আমরা তা তো জানিনা। সিবিআই তদন্ত করে সেটা বার করার চেষ্টা করছে। সিবিআই মিস্টার বন্দোপাধ্যায়ের বাড়ি পর্যন্ত গিয়েছে। তাঁর স্ত্রীর মাধ্যমে বিদেশের ব্যাংকে টাকা গিয়েছে, তা জানার পরেই তো সিবিআই তাঁকে নোটিশ পাঠিয়েছে। লালাকে তো খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এরপরেও যদি তৃণমূল কংগ্রেস ভোটে জেতে তো জিতবে। আমরা জানতে চাই কয়লা ও গোরুর কোটি কোটি টাকা কোথায় গিয়েছে মন্তব্য করেন বিজেপি নেত্রী।

- Advertisement -

অগ্নিমিত্রা পাল দাবি করেন, বাংলার বিধানসভা নির্বাচনে কৃষক আন্দোলনের কোনও প্রভাব পড়বে না। গোটা দেশের কৃষকরা তো এই আইনের বিরোধিতা করেছেন না। পাঞ্জাব ও হরিয়ানার মতো দুই-একটি রাজ্যের কৃষকরা আন্দোলন করছেন। তাঁরা চাইছেন দেশে একটা গণ্ডগোল করতে। তাঁদের উদ্দেশ্য নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করা। মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকারের জন্য বাংলার কৃষকরা কেন্দ্র সরকারের প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভানেত্রী।