ত্রাণে দলবাজি! টুইটারে আগুন ঝরালেন অগ্নিমিত্রা

164

হরিশ্চন্দ্রপুর: ত্রাণ বিতরণে দলবাজির খবরের তীব্র প্রতিক্রিয়া জানালেন বিজেপির আসানসোলের বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল। এদিন টুইটারে তীব্র ভাষায় রাজ্য সরকার ও তৃণমূলকে আক্রমণ করেন অগ্নিমিত্রা। তিনি লিখেছেন, ‘বিজেপিকে ভোট দেওয়ার খেসারত দিচ্ছেন মালদহ হরিশচন্দ্রপুরের মানুষ। ত্রাণ সামগ্রী মিলছে না। মিলছে না খাবার, পানীয় জল,  ওষুধ ও করোনার টিকা। মনে হচ্ছে রাজনৈতিক রং দেখে রাজ্যের মানুষকে ত্রাণ সামগ্রী বিলি করা হয়। তালিবানি মানসিকতা…বিরোধীদের দমানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।’

ফোনেও অগ্নিমিত্রার তোপ, রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের রেজাল্ট বেরোনোর পর থেকেই তৃণমূলের সন্ত্রাসে বহু বিজেপি কর্মী সমর্থক ঘরছাড়া। ভোটের পর থেকে তৃণমূল রাজ্যে তালিবানের মত আচরন করছে। তৃণমূলের মতো না চললে নিগ্রহ করা হবে অত্যাচার করা হবে মেরে ফেলা হবে। ইতিমধ্যেই তাঁদের বহু কর্মীকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে দিয়ে তৃণমূলের পতাকা মুখে পুরে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ তাঁর। মালদার বন্যা প্লাবিত এলাকায় ত্রাণ নিয়েও সরব ছিলেন নেত্রী। বিজেপি বলে বানভাসি ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ ত্রাণ পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন তিনি। তবে তাঁরা ওই এলাকা পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান অগ্নিমিত্রা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হরিশ্চন্দ্রপুরে ফুলহারের জলে সম্প্রতি প্লাবিত হয় ৮ টি গ্রাম। বন্দী হয়ে পড়ে প্রায় ৫ হাজার পরিবার। গ্রামবাসীদের একাংশের অভিযোগ, বেছে বেছে ত্রাণ বিলি করা হচ্ছে। বিজেপিকে ভোট দেওয়ার শাস্তি হিসেবে তাঁদের ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে না। মালদা তৃণমূলের নবনির্বাচিত সভাপতি আব্দুর রহিম বক্সি জানান, বানভাসি মানুষদের দলমত নির্বিশেষে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এর মধ্যে কোন দলবাজির ব্যাপার নেই।

- Advertisement -