প্রাক-বিশ্বকাপে দল গড়া নিয়ে সমস্যায় স্টিমাক

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : ফিফার তরফ থেকে এআইএফএফকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কাতারে প্রাক-বিশ্বকাপ পর্বের ম্যাচগুলি পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। ফলে এই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলির আগে দল গড়তে হিমশিম অবস্থা ইগর স্টিমাকের।

ভারতের বাকি ৩ ম্যাচ। কাতারের বিপক্ষে ৩ জুন। এরপর আফগানিস্তান ৭ ও বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ১১ জুন। আপাতত চার পয়েন্ট নিয়ে যথেষ্ট চাপে ভারত। পরবর্তী রাউন্ডে যেতে হলে এই তিন ম্যাচে ভালো ফল করাটা অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু এই ম্যাচগুলিই খেলতে যেতে হবে বিনা প্রস্তুতিতে। শুধু তাই নয়, এই করোনাকালে হয়ত সেরা দলটাই হাতে পাবেন না স্টিমাক। প্রবীর দাশ ও শেখ সাহিলের কোভিড পজেটিভ আগেই ধরা পড়েছে। তাই শিবিরে এই দুজনের ডাক পাওয়ার আর কোনও সম্ভাবনা নেই। আরও তিনি সম্ভাব্য ফুটবলারও একইভাবে করোনায় আক্রান্ত বলে খবর। এছাড়াও বহু ফুটবলার আছেন, যাঁদের পরিবারের লোকজনের হয়েছে। তাঁদের নিয়ে যাওয়া সম্ভব কিনা তাও বুঝতে পারছেন না টিম ম্যানেজমেন্ট।

- Advertisement -

আগে ঠিক ছিল, ভারতীয় দল ৩ মে থেকে কলকাতায় শিবির করবে। কিন্তু করোনা প্রবলভাবে বাড়তে থাকায় শেষপর্যন্ত সেই শিবির বাতিল করা হয়। এরপর ফেডারেশন চেষ্টা করে গোটা দলকে দুবাইয়ে নিয়ে যেতে। কিন্তু সেখানেও সমস্যা। দুবাইয়ে ভারতীয়দের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কাতারে এই সমস্যা না থাকলেও সেখানে অন্তত ১০ দিন কোয়ারোন্টিনে থাকতে হচ্ছে ভারতীয়দের। অর্থাৎ আর দিন দুয়েকের মধ্যে যেতে না পারলে অনুশীলনেরই সুযোগ পাবে না ভারতীয় দল। সেক্ষেত্রে প্রায় বিনা প্রস্তুতিতেই মাঠে নামতে হবে এবার সুনীল ছেত্রীদের। এই মুহূর্তে স্টিমাকের হাতে আর শিবির করে দল নিয়ে যাওয়ার মতো সময়ও আর নেই। তাছাড়া করোনার জন্য ভারতের বিভিন্নপ্রান্তে এখন লকডাউন চলছে। তাই ফেডারেশনেরও মাথাব্যথা, ফুটবলারদের বিভিন্ন জায়গা থেকে দিল্লি বা মুম্বইয়ে উড়িয়ে আনা।

সবমিলিয়ে ইগর স্টিমাকের জন্য পরিস্থিতি যথেষ্টই ঘোরালো। সবথেকে বড়ো কথা, এটাই হয়ত তাঁর নিজেকে প্রমান করার শেষ সুযোগ। কিন্তু সেখানেই তিনি সেরা দল এবং পূর্ণ প্রস্তুতিসহ দল নিয়ে যেতে পারছেন না।