দেশের সব মৌলবাদী,সন্ত্রাসবাদীই মাদ্রাসায় বেড়ে উঠেছে, আর্থিক অনুদান বন্ধের আর্জি মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রীর

316

নয়াদিল্লি: দেশের সব সন্ত্রাসবাদী, মৌলবাদীই মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছে। তাই মাদ্রাসাগুলিকে সরকারি আর্থিক অনুদান বন্ধ করুক সরকার। এমনটাই দাবি করলেন মধ্যপ্রদেশের সংস্কৃতিমন্ত্রী উষা ঠাকুর।

এদিন তিনি বলেছেন, দেশের সব মৌলবাদী,সন্ত্রাসবাদীই বেড়ে উঠেছে মাদ্রাসায়। শিশুরা শিশুই, পড়ুয়ারা পড়ুয়া। সব ধর্মের পড়ুয়াদের জন্যই এক ধাঁচের শিক্ষাব্যবস্থা থাকা উচিত বলে আমার বিশ্বাস। অসম এটা করেছে। ধর্মভিত্তিক শিক্ষায় মৌলবাদ, কট্টরপন্থা বাড়ছে, ঘৃণার প্রসার হচ্ছে। তিনি প্রশ্ন তোলেন, মাদ্রাসাগুলি কী শেখাচ্ছে? এ দেশের নাগরিক হলে দেখবেন, সব সন্ত্রাসবাদী, জঙ্গিই মানুষ হয়েছে মাদ্রাসায়। জম্মু ও কাশ্মীরকে তো সন্ত্রাসবাদের কারখানা বানানো হয়েছে। যারা ধর্মীয় শিক্ষা নিতে চায়, তারা নিজেদের অর্থে তার ব্যবস্থা করতে পারে, সংবিধানে তাদের সেই অধিকার আছে।’

- Advertisement -

উষার স্পষ্ট দাবি, মাদ্রাসাগুলিতে সরকারি আর্থিক সহায়তা অবশ্যই বন্ধ হওয়া উচিত। ওয়াকফ বোর্ড আর্থিক দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সংগঠন, তারাই মাদ্রাসাগুলিকে টাকাপয়সা দেওয়ার দায়িত্ব নিতে পারে।

সম্প্রতি অসম সরকার পরিচালিত মাদ্রাসা ও সংস্কৃত টোলগুলো বন্ধ করে সেগুলিকে নিয়মিত স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যাতে শিক্ষা ব্যবস্থায় সাযুজ্য, সঙ্গতি থাকে। মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী অসমকে মডেল করেই এগনোর পরিকল্পনা প্রকাশ করলেন ।