হাথরস মামলা অন্যত্র সরানোর ভাবনা এলাহাবাদ হাইকোর্টের

65

লখনউ: নির্যাতিতার পরিবার ও আইনজীবীর সুরক্ষার খাতিরে এবার হাথরস মামলা সরিয়ে নেওয়ার ভাবনা এলাহাবাদ হাইকোর্টের। হাথরসে তরুণীকে ধর্ষণের মামলায় বিশেষ নজরদারি রেখেছে এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চ। সেখানেই নির্যাতিতার পরিবারের তরফে একটি হলফনামা দাখিল করা হয়। সেখানে জানানো হয়, নির্যাতিতার পরিবার ও আইনজীবী সীমা কুশওয়াকে নানারকম হুমকি ও হেনস্তার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। সেকারণেই মামলা সরিয়ে নেওয়া হোক।

নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগ, গত ৫ মার্চ হাথরস জেলা আদালতে মামলার শুনানি চলাকালীন এক আইনজীবী মদ্যপ অবস্থায় আদালত কক্ষের মধ্যে প্রবেশ করেন। সেখানে নির্যাতিতার পরিবার ও আইনজীবীকে নানারকম হুমকি দিতে থাকেন। পরে আইনজীবীদের একটি দলও আদালত কক্ষে প্রবেশ করে তাঁদের হুমকি দিতে থাকে। মামলা নিয়ে বেশিদূর গেলে ফল ভাল হবে না বলে হুমকি দেওয়া হয় তাঁদের। হলফনামায় এই ঘটনার কথাই বিস্তারিত উল্লেখ করেছে নির্যাতিতার পরিবার। এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আদালত। নির্যাতিতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতেই আদালত ৫ মার্চের ঘটনার একটি বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়েছে। পাশাপাশি, পুলিশ যেন আদালত কক্ষে নির্যাতিতার পরিবার ও আইনজীবীকে আলাদা করে নিরাপত্তা দেয়, সে বিষয়েও জানিয়েছে আদালত।

- Advertisement -

গত বছর সেপ্টেম্বরে এক তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই তরুণীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তবে সেখানেই মারা যায় সে। সেই সময় পরিবারের হাতে দেহ না দিয়েই তড়িঘড়ি রাতের অন্ধকারে দেহ সৎকার করে দেয় পুলিশ। সেই ঘটনার তদন্তভার যায় সিবিআইয়ের হাতে। এরপরই চার জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও খুনের মামলা রুজু করা হয়।