দিন-দুপুরে দাদাগিরি, তোলা না দেওয়ায় ব্যবসায়ীর হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ

87

রামপুরহাট, ৫ জুনঃ তোলা না দেওয়ায় প্রকাশ্যে আম ব্যবসায়ীর হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। রামপুরহাট শহরে দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্যে সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত। এরইমাঝে শহরে এই ঘটনার পর পুলিশি নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছেন ব্যবসায়ীরা। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও, এখনও কাউকে ধরতে পারেনি। এদিন শহরের ১০ নম্বর ওয়ার্ডের দেশবন্ধু রোডে ঘটনাটি ঘটেছে। মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জের আরও ব্যবসায়ীর মতো নুর সেলিম শেখও এদিন দুপুরে একটি ট্রেলারের সামনে রাস্তার ধারে ফুটপাথে বসে আম বিক্রি করছিলেন।

অভিযোগ, সেই সময় ওই ওয়ার্ডেরই পাঁচ জন যুবক ওই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকার দাবি করেন। ব্যবসায়ী টাকা দিতে অস্বীকার করায়, তাঁকে রাস্তায় ফেলে পেটানো হয়। মেরে তাঁর বাম হাত ভেঙে দেওয়া হয়েছে। ব্যথার চোটে কান্নায় ভেঙে পড়েন সেলিম।দোকানের সমস্ত আম দুষ্কৃতীরা রাস্তায় ছড়িয়ে দেয়। খবর পেয়ে এলাকার অন্য আম ব্যবসায়ীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এরপর তাঁরাই তাঁকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে, জখম ব্যবসায়ীকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

- Advertisement -

নুর সেলিম শেখ বলেন, পাঁচ জন মিলে প্রথমে পঞ্চাশ টাকা দাবি করে। আমি দিতে অস্বীকার করলে, কয়েক কেজি আম ঝুড়ি থেকে তুলে নেয়। প্রতিবাদ করতেই লাঠি দিয়ে আমাকে রাস্তায় ফেলে মারতে শুরু করে। আমার হাত ভেঙে গিয়েছে। প্রকাশ্যে মারধর করা হলেও, কেউ বাঁচাতে আসেননি। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের দাবি, পুলিশ দায়সারাভাবে তদন্ত না করে, শহরের সিসিটিভি ক্যামেরার ছবি দেখে দুষ্কৃতীদের সনাক্ত করুক। দুষ্কৃতীরা শাস্তি না পেলে, শহরে দাদাগিরি কমবে না বলে দাবি করা হয়েছে।