সরকারি প্রকল্পের সুবিধে পাইয়ে দেওয়ার আশ্বাসে টাকা আদায়ের অভিযোগে বিদ্ধ পঞ্চায়েত সদস্য

168

ঘোকসাডাঙ্গা: সবে শুরু হয়েছে প্রকল্প চালুর প্রক্রিয়া। এরই মাঝে প্রকল্পের সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার নামে টাকা তোলার অভিযোগ উঠল স্থানীয় পঞ্চায়েত সহ বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধে। যদিও সকলেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। অন্যদিকে, অভিযোগ প্রসঙ্গে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে ব্লক প্রশাসন। ঘটনাটি, মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের উনিশ বিশা গ্রাম পঞ্চায়েতের ছেঁড়ামারী গ্রামের ২/১৪১ বুথ এলাকার।

ভোট পর্ব মিটতেই প্রতিশ্রুতি মোতাবেক লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প গৃহীত হয় রাজ্যের তরফে। চলতি বছরের আগস্ট মাসের ১৬ তারিখের পর থেকে দুয়ারে সরকারের মাধ্যমে আবেদন গ্রহণের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকল্প চালু হবে বলে নবান্ন সূত্রে ঘোষণা করা হয়। যদিও প্রকল্প শুরুর আগেই সুবিধে পাইয়ে দেওয়ার নামে গ্রামের মহিলাদের থেকে মাথাপিছু ১০০ টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠল ছেঁড়ামারী গ্রামের ২/১৪১ বুথের স্থানীয় পঞ্চায়েত আখতার মিয়াঁ সহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে যে প্রকল্পের আওতায় আবেদন জমা নেওয়ার প্রক্রিয়া এখনও শুরুই হয়নি সে প্রকল্পের নামে কিভাবে টাকা নিচ্ছেন স্থানীয় পঞ্চায়েত। ঘটনা প্রসঙ্গে তাঁর দাবি অভিযোগ ভিত্তিহীন। অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ, জেরক্স, ছবি তোলা সহ বিভিন্ন খরচ বাবদ টাকা নেওয়া হয়েছে। বাড়তি কোনও টাকা তোলা হয়নি।

- Advertisement -

ঘটনা প্রসঙ্গে প্রধান মনোজা বিবি জানান, বিষয়টি জানা ছিল না। তবে, বর্তমানে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের বিডিও উজ্বল সর্দার জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, খোঁজ নিয়ে দেখা হবে।