ভর্তির সময় অতিরিক্ত ফি নেওয়ার অভিযোগ স্কুলের বিরুদ্ধে

142

চোপড়া, ১১ জানুয়ারিঃ চোপড়ার কোথাও দ্বাররক্ষী, কোথাও আবার শৌচাগার উন্নয়ন তহবিলের নাম করে ভর্তির সময় অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগে উঠতে শুরু করেছে। এলাকার বিভিন্ন স্কুলে ইতিমধ্যে ভর্তি শুরু হয়েছে। সদর চোপড়া এলাকায় চোপড়া হাইস্কুল ও চোপড়া গার্লস হাইস্কুলে ভর্তির সময় দু’টি স্কুল থেকেই পৃথক ইস্যুতে অতিরিক্ত ফি আদায়ের জন্য অভিভাবকদের বা পড়ুয়াদের হাতে কুপন ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ।

যেখানে ভর্তি ফি হিসেবে নেওয়ার নিয়ম মাত্র ২৪০ টাকা। চোপড়া গার্লস হাইস্কুলে এবার পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করা হচ্ছে ৩৪০ টাকা। ভর্তি বাবদ ২৪০ টাকা সরস্বতী পুজো বাবদ ৫০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও শৌচাগার উন্নয়ন তহবিল বাবদ ৫০ টাকা নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠছে। একইভাবে চোপড়া হাইস্কুলে দ্বাররক্ষী বাবদ ছাত্রদের মাথা পিছু অতিরিক্ত ৩০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। গার্লস হাইস্কুল থেকে অবশ্য শৌচাগার উন্নয়ন তহবিলের নাম করে টাকা আদায়ের ঘটনা নতুন কিছু নয়।

- Advertisement -

২০১৮ সাল থেকে এই নিয়ম চালু করা হয় বলে জানা গিয়েছে। তবে, আগে মাথা পিছু ১০০ টাকা নেওয়া হত। এবারে সেটা কমিয়ে ৫০ টাকা করা হয়েছে। প্রধান শিক্ষিকা মল্লিকা সাহা-র সাফ কথা বিভিন্ন মহলে জানিয়েও আর্থিক সহযোগিতা মেলেনি। স্কুলে শৌচালয়ের ভীষণ সমস্যা। নিজেদের চেষ্টায় নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। এখনও কাজ অসম্পূর্ণ রয়েছে। অন্যদিকে, চোপড়া হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ড. প্রশান্ত বসাক স্কুলে দ্বাররক্ষী বাবদ অতিরিক্ত ৩০ টাকার কুপন চালুর কথা স্বীকার করেছেন।