ন্যাজাট, ১৭ মেঃ সন্দেশখালিতে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠল বসিরহাটের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসুর বিরুদ্ধে। ন্যাজাট থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

১৯ মে রাজ্যের শেষ অর্থাৎ সপ্তম দফা নির্বাচন। তার প্রচারের সময়সীমা একদিন কমিয়ে দেয় নির্বাচন কমিশন। বৃহস্পতিবার রাত ১০টা পর্যন্ত নির্বাচনী প্রচারের শেষ সময়সীমা ছিল। সেই মতো সব রাজনৈতিক দলগুলি প্রচার শেষ করেছে। শুক্রবার সকাল ১১টা নাগাদ বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সায়ন্তন বসু সন্দেশখালির ন্যাজাট থানার রাজবাড়িতে এক বিজেপি নেতা সজল মণ্ডলের বাড়িতে যান। তাঁকে দেখেই এলাকার আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। প্রতিবাদ বিক্ষোভের জেরে সায়ন্তনবাবু সেখান থেকে গাড়ি নিয়ে চলে আসেন।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, ভোটারদের প্রভাবিত করা, উস্কানিমূলক মন্তব্য এবং টাকা দিয়ে ভোট করানোর জন্য সায়ন্তনবাবু এখানে এসেছিলেন। এই ঘটনা জানাজানি হতেই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনার জেরে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। এরপরই সন্দেশখালি ১-এর সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি ও তৃণমূল নেতা জিয়াউদ্দিন মোল্লা স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বকে নিয়ে ন্যাজাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। একইসঙ্গে বিডিও ও ইলেকশনের রিটার্নিং অফিসারের কাছেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা।