স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ, গ্রেপ্তার স্বামী সহ ৩

178

হরিশ্চন্দ্রপুরঃ পণের টাকা না মেলায় গায়ে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে গ্রেপ্তার স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়ি। শনিবার রাতে মালদার হরিশ্চন্দ্রপুর থানার বড়োল গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতার নাম নাখো ঘোষ (২০)। মৃতার পরিবারের অভিযোগ পেয়ে রবিবার সকালে তাদের বাড়ি থেকে স্বামী প্রকাশ ঘোষ, শ্বশুর বুদ্ধু ঘোষ ও শাশুড়ি কল্পনা ঘোষকে গ্রেপ্তার করে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। এদিন মৃতদেহটিকে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, পাঁচ মাস আগে বিহারের সুধানীর নাখো ঘোষের সঙ্গে বড়োলের প্রকাশ ঘোষের বিয়ে হয়। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই নাখোর ওপর পনের জন্য শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন। মৃতার পরিবারের অভিযোগ আগে পণ দিয়ে মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলেন।

কিন্তু বিয়ের পর থেকে আরও পণের দাবিতে বধূর উপরে নির্য়াতন শুরু হয় বলে অভিযোগ। টাকা না পেয়ে শনিবার বিকেলে স্ত্রীকে রান্নাঘরে আটকে তাঁর গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। রাতে মালদা মেডিকেল কলেজ নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় তাঁর। হরিশ্চন্দ্রপুরের আইসি সঞ্জয় কুমার দাস বলেন, খুনের অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। মৃতার ভাই ভেলুশন যাদব বলেন, ‘দিদি আত্মহত্যা করেনি। টাকা না পেয়ে ওরা ওকে পুড়িয়ে মেরেছে। দোষীদের কঠোর শাস্তি চাই। আমার বোন আত্মহত্যার পাত্রী নয়। পুলিশ ঘটনার প্রকৃত তদন্ত করলে সব পরিষ্কার হবে।’

- Advertisement -