ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগ, প্রধান শিক্ষককে জুতোর মালা

295

বুনিয়াদপুর: লকডাউনে মিড ডে মিল দেওয়ার নাম করে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীদের ডেকে স্কুল পরিষ্কার করানোর নামে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠল প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার অভিযুক্ত শিক্ষকের দুই হাত বেঁধে, গলায় জুতোর মালা পরিয়ে দিলেন অভিভাবকরা। ঘটনাটি ঘটেছে বংশীহারী ব্লকের এলাহাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের ছোট করই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

অভিযোগ, প্রায়শই স্কুলের সামনে ঘুরে বেড়ানো ছাত্রীদের ডেকে নেন ওই প্রধান শিক্ষক। এদিনও এক চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ডাকেন তিনি। যদিও ওই ছাত্রী স্কুলে যেতে রাজি হয়নি। বিষয়টি জানতে পেরে তার মা মারধর করে এবং স্কুলে যেতে বাধ্য করে। সেসময় প্রধান শিক্ষকের কুকীর্তির কথা মা’কে জানায় ওই ছাত্রী। তড়ঘড়ি বিষয়টি গ্রামের অন্যান্যদের জানান ওই ছাত্রীর মা। এরপরেই প্রধান শিক্ষককে ঘেরাও করে জেরা করতেই দোষ স্বীকার করে নেন তিনি। ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সকলেই। প্রধান শিক্ষকের দুই হাত বেঁধে জুতোর মালা পরিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তাঁরা। পরে বংশীহারী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

- Advertisement -

এবিষয়ে স্কুলের ছাত্রীরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে প্রধান শিক্ষক এধরণের অশ্লীল আচরণ করে চলেছে।

বংশীহারী সার্কেলের স্কুল পরিদর্শক মোকসেদ আলম বলেন, ‘শিক্ষাবন্ধুকে বিষয়টি জানিয়েছি। শিক্ষাবন্ধুর তরফে রিপোর্ট পেলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানানো হবে।’