জমি বিবাদের জেরে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ

285
প্রতীকী ছবি।

রায়গঞ্জ: জমি বিবাদের জেরে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে খুনের অভিযোগ উঠেছে রায়গঞ্জ থানার রামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের লহন্ডা গ্রামে। এদিন দুপুরে ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দুষ্কৃতীরা গা ঢাকা দেয়। জেলার পুলিশ সুপার সুমিত কুমার বলেন, ‘অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।’ যদিও এদিন বিকেল পর্যন্ত খুনের সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, লহণ্ডা এলাকায় মাত্র আট শতক বসতবাড়ির জমি নিয়ে মহম্মদ আলির সঙ্গে লাল মহম্মদের দীর্ঘদিনের পারিবারিক বিবাদ। অভিযোগ, এদিন সকাল থেকেই ওই জমির দখল নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে ঝামেলা শুরু হয়। সেই সময় মহম্মদ আলি বাড়িতে ছিলেন না। এদিন দুপুর দুটোর সময় মহারাজা হাট থেকে বাড়ি ফেরেন মহম্মদ আলি। বাড়িতে ফিরতেই মহম্মদ আলিকে টেনে-হিঁচড়ে বাইরে নিয়ে যায় কয়েকজন দুষ্কৃতী। তাঁর মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয়। দাদাকে বাঁচাতে গেলে ভাই দানেশ মহম্মদ ধারালো অস্ত্রের কোপে জখম হন। তাঁদের উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে মহম্মদ আলিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসক। ভাই দানেশকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে রেফার করা হয়।

- Advertisement -

মৃতের স্ত্রী সুফিয়া বিবি বলেন, ‘লাল মহম্মদ, শফিকুল ইসলাম, আক্তারুল হক, মুক্তার হক, ইসাক আলম ধারালো অস্ত্র ও লোহার রড দিয়ে আমার স্বামী ও দেওরের উপর হামলা চালায়। ধারালো অস্ত্রের কোপে স্বামীর মৃত্যু হয়েছে।’ এদিকে, মৃত্যুর খবর পৌঁছাতেই উত্তেজনা ছড়ায় লহণ্ডা গ্রামে। অভিযুক্তদের বাড়ি ভাঙচুরের চেষ্টা করে উত্তেজিত জনতা। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।