প্রেমিকাকে খুনের অভিযোগ প্রেমিকের বিরুদ্ধে

152

সিউড়ি: প্রেমিকাকে নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে তাঁকে খুনের অভিযোগ উঠল প্রেমিকের বিরুদ্ধে। ঘটনাকে ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে দুবরাজপুর থানার হেতমপুর গ্রামে। পরিবারের অভিযোগ, তরুণীকে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবক আত্মসমর্পণ করেছেন বলে পুলিশের দাবি।

মৃত তরুণী একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিলেন। তাঁর বাড়ি পশ্চিম বর্ধমান জেলার লাউদহ থানার তাঁতিপাড়া গ্রামে। পার্শ্ববর্তী শ্রীকৃষ্ণপুর টুকুটি গ্রামের বাসিন্দা এক যুবকের সঙ্গে তাঁর ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। রবিবার সকালে অভিযুক্ত যুবকের স্কুটিতে চেপে বীরভূমের দুবরাজপুর থানার হেতমপুর গ্রামে যান ওই তরুণী। সেখানে তাঁরা যুবকের এক নিকট আত্মীয়ের বাড়িতে ওঠেন।

- Advertisement -

সোমবার সকালে ওই বাড়ির লোকজন দেখেন, অভিযুক্ত যুবক স্কুটি নিয়ে পালিয়েছে। আর তরুণীর মৃতদেহ পড়ে আছে।

খবর পেয়ে দুবরাজপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে। তরুণীর মৃতদেহের পাশ থেকে একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। খবর দেওয়া হয় মেয়ের বাড়িতে। তরুণীর বাবা জানান, পাশের গ্রামের ওই যুবকের সঙ্গে মেয়ের প্রেমের ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। মেয়ের মাথায় সিঁদুর দেখে তিনি অবাক। নিমাইবাবুর দাবি, মেয়ের বিয়ে হয়নি। বিয়ের জন্য অন্যত্র কথাবার্তা চলছিল। দিন কয়েক বাদেই বিয়ের কথা ছিল। তার আগেই এই ঘটনা।

এদিকে, কীভাবে তরুণীর মৃত্যু হল, তার তদন্ত করছে পুলিশ। অভিযুক্ত যুবক লাউদহ থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তরুণীর মৃত্যুর কারণ জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।