পার্টি অফিস বিক্রির অভিযোগ প্রাক্তন বিধায়ক বক্সীর বিরুদ্ধে

1565

সামসী: মালতীপুর কাশি পাড়ায় অবস্থিত চাঁচল-২ ব্লকের আরএসপি পার্টি অফিস বিক্রির অভিযোগ উঠল প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সীর বিরুদ্ধে। এনিয়ে জেলা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। শাসকদলে থেকে আরএসপির পার্টি অফিস কি করে বিক্রি করতে পারেন। এনিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। জালিয়াতি করে আরএসপি পার্টি অফিস বিক্রি করার জন্য প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সীর বিরুদ্ধে চাঁচল থানায় মঙ্গলবার এক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন আরএসপির মালদা জেলা সম্পাদক সর্বানন্দ পান্ডে। অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছেন।

আরএসপির মালদা জেলা সম্পাদক সর্বানন্দ পান্ডে অভিযোগ পত্রে সাফ উল্লেখ করেছেন মালতীপুর কাশি পাড়ায় অবস্থিত দু শতক জমির উপর আরএসপির নিজস্ব পার্টি অফিস রয়েছে। যা দলের সম্পদ। কারও ব্যক্তিগত সম্পদ নয়। অথচ প্রাক্তন বিধায়ক রহিম বক্সী বেআইনিভাবে নিজের স্ত্রীর কাছে বিক্রি করেছেন। উল্লেখ্য, ২০১০ সালে ওই জমি ক্রয় করা হয়েছিল।

- Advertisement -

সর্বানন্দ পান্ডে আরও বলেন, ২০১৯ সালের ১১ জানুয়ারি বক্সী আরএসপি ছেড়ে শাসকদলে যোগদান করেন। দল বিরোধী কাজের জন্য তাঁকে ২৬/০১/২০১৯ তারিখে আরএসপি দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। পাশাপাশি চাঁচল-২ লোকাল কমিটিও ভেঙে দেওয়া হয়। কিন্তু মজার ব্যাপার হল ১৪/০৬/২০১৯ তারিখে প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সী  চাঁচল-২ আরএসপি পার্টির তরফে চাঁচল মহকুমা সম্পাদক হিসেবে মালতীপুরের আরএসপির দলীয় অফিসের দু শতক জমি নিজ স্ত্রী আয়েশা খাতুনের নামে জাল বিক্রি নামা বানিয়েছেন। যা সম্পূর্ণ অবৈধ ও বেআইনি।

আরএসপির জেলা সম্পাদক সর্বানন্দ পান্ডে অভিযোগ করে বলেন, তিনি শাসকদলে থেকে কি করে আরএসপির পার্টি অফিস বিক্রি করতে পারেন? যদি বিক্রি করার দরকার পড়ে সেটা একমাত্র আরএসপি পার্টিই ওই জমি বিক্রি করতে পারবেন। প্রাক্তন বিধায়কের দায়িত্বজ্ঞানহীন কর্মকান্ডে বেজায় ক্ষুব্ধ আরএসপির নেতা কর্মীরা। মালতীপুরে অবস্থিত আরএসপির দলীয় কার্যালয় জালিয়াতি করে নিজ স্ত্রীর নামে বিক্রি করার দায়ে মঙ্গলবার চাঁচল থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেন আরএসপির জেলা সম্পাদক সর্বানন্দ পান্ডে।

জালিয়াতি করে জমি বিক্রির অপরাধে প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সীসহ এর সাথে যাঁরা জড়িত তাঁদের সবার বিরুদ্ধে যাতে পুলিশ কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে প্রাক্তন বিধায়ক আব্দুর রহিম বক্সী বলেন, মালতীপুর আরএসপির পার্টি অফিস নিয়ম মেনেই বিক্রি করা হয়েছে। তিনি সাফ বলেন, আমার বিরুদ্ধে জালিয়াতি প্রমাণ করতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দিব। আমার ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।