দুই কেন্দ্রে প্রার্থী ঘোষণা হতেই জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ প্রকাশ্যে

88

আসানসোল: পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল মহকুমার কুলটি ও বারাবনি বিধানসভায় সংযুক্ত মোর্চার দুই কংগ্রেস প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয় রবিবার। বারাবনিতে সালানপুর ব্লক কংগ্রেস সভাপতি রণেন্দ্রনাথ বাগচী ও কুলটিতে শ্রমিক নেতা চন্ডীদাস চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করা হয়েছে। প্রার্থীর নাম ঘোষণা হতেই রবিবার আসানসোল মহকুমায় কংগ্রেসের কোন্দল প্রকাশ্যে। দলের জেলা সভাপতি দেবেশ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে তুলে ধরেন রাজ্য এবং জেলা স্তরের একাধিক নেতা। তাদের অভিযোগ, টাকার বিনিময়ে দলের প্রার্থীদের নাম সুপারিশ করেছেন জেলা সভাপতি। যদিও জেলা সভাপতি এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

এদিন জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ উগরে আসানসোলের দলীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ খোলেন রাজ্য সম্পাদক প্রসেঞ্জিৎ পইতুণ্ডি, প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সদস্য জিতু সিং এবং জেলা সম্পাদক শাহিদ পারভেজ। তাঁরা জানান, বিষয়টি এআইসিসি এবং প্রদেশ নেতৃত্বকে জানানো হবে। উপযুক্ত পদক্ষেপ গৃহীত না হলে নির্দল প্রারথী দেওয়ার ক্ষেত্রে চিন্তাঃভাবনা করব। প্রসেনজিৎবাবু বলেন, ‘আমি প্রার্থী হতে চেয়ে জেলা সভাপতির কাছে গিয়েছিলাম। সেদিন জেলা সভাপতি আমাকে বলেছিলেন প্রার্থী হতে গেলে দলের জন্য এবার টাকা লাগবে। সেই টাকা আমি দিতে পারিনি। অথচ গত পঞ্চায়েত নির্বাচন থেকে শুরু করে চিত্তরঞ্জন রেল ইঞ্জিন কারখানার আন্দোলনে আমি দলের অন্যতম মুখ হয়ে সামনের সারিতে ছিলাম।’ জিতু সিং বলেন, ‘আমি শিখ ও সংখ্যালঘু তাই কুলটিতে দাঁড়ানোর সুযোগ দিতে চায় না দল। সেই জন্যই এবার এমন একজনকে প্রার্থী করা হয়েছে যার মেয়েকে দল এর আগে একাধিকবার বিধানসভানও লোকসভায় প্রার্থী করেছিল। প্রতিবারই তিনি হেরেছিলেন। এতে দলের ক্ষতি হয়েছে। আরও হবে।’ শাহিদ পরভেজ বলেন, ‘যদি আমাদের কথা দল না শোনে তাহলে আমরা আসানসোল উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রে আইএসএফের প্রার্থীকে সমর্থন করব না। পাশাপাশি বিজেপির বিরোধিতা করতে অন্য যে ভালো তেমন প্রার্থীদেরই আমরা অন্যান্য জায়গায় সমর্থন করব।’

- Advertisement -

দলের বর্তমান জেলা সভাপতি দেবেশ চক্রবর্তী বলেন, ‘এর আগেও যখনই কংগ্রেস দলের তরফে টিকিট দেওয়া হয়েছে তখনই এইসব অভিযোগ তোলা হয়েছে। যদি এমন অভিযোগ থেকে থাকে, তাহলে প্রমান দিন। প্রমাণের ভিত্তিতে অবশ্যই তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে দল। আসলে এইসব কথা ক্ষোভ ও অভিমান থেকে বলছেন ঐসব নেতারা।’

প্রসঙ্গত, জেলা কংগ্রেসের সভাপতি দেবেশ চক্রবর্তীকে দল দূর্গাপুর পশ্চিম কেন্দ্রে প্রার্থী করেছে।