বিজেপি সমর্থকের বাড়িতে হামলার অভিযোগ শাসকদলের বিরুদ্ধে

356

সিউড়ি: তৃণমূল থেকে বহিষ্কৃত হয়ে বিজেপি করার অপরাধে দুটি বাড়িতে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠল শাসক দলের বিরুদ্ধে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। তাদের দাবি গাছ চুরি করার জন্য পুলিশ দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে। আর যেখানে বিজেপির কোন অস্তিত্ব নেই সেখানে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ ভিত্তিহীন।

ঘটনাটি সিউড়ি ২ নম্বর ব্লকের কোমা অঞ্চলের মেটে গ্রামের। ওই গ্রামের দামোদর পাল ও জয়দেব মণ্ডল আগে তৃণমূল করতেন। বহিষ্কৃত হওয়ার পর তারা বিজেপিতে যোগ দেন। অভিযোগ এরপরেই অত্যাচার শুরু হয়। রবিবার সন্ধ্যার সময় দিকে অঞ্চল সভাপতি বলরাম বাগদি, সুকান্ত দাস ও অশোক মণ্ডলের নেতৃত্বে হামলা চলেছে।

- Advertisement -

দামোদরবাবু বলেন, “তৃণমূল থেকে আমাকে বের করে দেওয়ার পর বিজেপিতে যোগদান করি। তারপর থেকেই অত্যাচার বাড়তে থাকে। রবিবার সন্ধ্যায় দুর্গা মন্দিরের কাছে তিনজনের নেতৃত্বে বেশ কিছু তৃণমূল কর্মী-সমর্থক জমায়েত করেন। প্রথমে তারা জয়দেব মণ্ডলের বাড়ি থেকে জল তোলা মেশিন তুলে নিয়ে যায়। বাধা দিতে গেলে আমার বাড়িতে চড়াও হয়ে বাক্স থেকে টাকা লুঠ করে নিয়ে যায়। রাত্রের খাবার নষ্ট করে দেয়। মোটরবাইকে ও ট্রাক্টরে ভাঙচুর চালায়। সব কিছু হয়েছে পুলিশের সামনে। কিন্তু পুলিশ কোন ভাবেই সাহায্য করেনি। ফলে আমরা আতঙ্কে রয়েছি”।

যদিও বলরামবাবু বলেন, “এই অঞ্চলে বিজেপির কোন অস্তিত্ব নেই। ওরা মিথ্যা কথা বলছে। আমি কিংবা আমাদের কোন লোকজন মেটে গ্রামে যায়নি। ক্যানেলের ধারে বেশ কিছু সরকারি গাছ কাটা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে দু’জনকে ধরে নিয়ে গিয়েছে। কোন ভাঙচুর হয়নি। ওরা সাজিয়ে এসব বলে মানুষের সহানুভূতি আদায়ের চেষ্টা করছে”।