বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দল প্রকাশ্যে, প্রধানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উপপ্রধানের

130

মানিকগঞ্জ: বিজেপির গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে ১০০ দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগ তুললেন উপপ্রধান সহ অন্য সদস্যরা। জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের খারিজা বেরুবাড়ি-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার ঘটনা। এই বিষয়ে মঙ্গলবার উপপ্রধান সহ অন্য সদস্যরা বিডিওকে লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছেন। পাশাপাশি তাঁরা তদন্তেরও দাবি তুলেছেন। যদিও প্রধান রেবতী রায়ের দাবি, অভিযোগ মিথ্যা। তাঁকে বদনাম করতেই এই অভিযোগ তোলা হয়েছে।

উপপ্রধান ডালটন রায় সহ বিজেপির অন্য গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যদের অভিযোগ, রাজ্য সরকারের দুয়ারে সরকার প্রকল্পের আগে ও পরে অবৈধভাবে প্রচুর নতুন জবকার্ড তৈরি করা হয়েছে। আর এদিকে ১০০ দিনের কাজ থেকে পরিযায়ী শ্রমিক ও দুঃস্থদের বঞ্চিত করা হচ্ছে। এজন্য জন প্রতিনিধিদের সাধারণ মানুষের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

- Advertisement -

বিজেপির পঞ্চায়েত সদস্যদের সঙ্গে সুর মিলিয়ে তৃণমূলের একমাত্র সদস্য প্রশান্তকুমার সরকার বলেন, ‘নতুন জবকার্ডধারীরা সকলেই আর্থিকভাবে যথেষ্ট সচ্ছল। বিডিওর কাছে জমা দেওয়া অভিযোগ পত্রের সঙ্গে নতুন জবকার্ডধারীদের নামের একটি তালিকাও দেওয়া হয়েছে। তাঁরা আবার ১০০ দিনের কাজ করতে যান না। কাজ না করেই টাকা পান তাঁরা। এজন্য মজুরির কিছুটা অংশ ঘুরপথে প্রধানের পকেটে যায়।’

তবে প্রধান রেবতী রায় জানান, ওইসব জবকার্ড তিনি দায়িত্ব নেওয়ার আগেই ইস্যু করা হয়েছিল। অথচ সেই দায় এখন তাঁর ওপর চাপিয়ে দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।