লক্ষ লক্ষ টাকার কেলেঙ্কারি রায়গঞ্জ মেডিকেলে, জানুন কী…

184

রায়গঞ্জ: করোনা টেস্ট কিট কেনা নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠল রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে। যা নিয়ে মেডিকেল কলেজের স্বাস্থ্যকর্মী সংগঠনের মধ্যে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। বিষয়টি গড়িয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন পর্যন্তও। লক্ষ লক্ষ টাকার কিট কোথায় গেল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে কর্মচারীদের একাংশ।

বিষয়টি নিয়ে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ ও রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনে অভিযোগ জানিয়েছেন মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ডাঃ রাজদীপ সাহা। অভিযোগের তির রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের কর্তাদের দিকে। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন রাজদীপবাবু। তাঁর অভিযোগ, লক্ষ লক্ষ টাকা বিল করা হলেও টেস্ট কিট তাঁর বিভাগে এসে পৌঁছোয়নি। সেই লক্ষ লক্ষ টাকা কাঁদের পকেটে গেল, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। যদিও সম্প্রতি অভিযোগ জানিয়ে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দেন রাজদীপবাবু।

- Advertisement -

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ডাঃ রাজদীপ সাহা বলেন, ’২০ লক্ষ টাকার কিট উধাও হয়ে যাওয়ার ঘটনায় মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ ও রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনে চিঠি দিয়েছিলাম। বিষয়টির যাতে তদন্ত হয় সেকারণেই এই চিঠি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে বিভাগীয় প্রধান থেকে সরে গিয়ে বর্তমানে মাইক্রোবায়োলজির অধ্যাপক পদে রয়েছি। আমিও চাই বিষয়টির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হোক।’ রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের এমএসভিপি প্রিয়ঙ্কর রায় অবশ্য বলেন, ‘আমি অভিযোগ পেয়েছিলাম। সমস্ত বিষয় রাজ্য স্বাস্থ্য ভবন জানে।’

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে একের পর এক অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় রীতিমতো সমালোচনার ঝড় উঠেছে রাজনৈতিক মহলেও। বিজেপির জেলা সভাপতি বিশ্বজিৎ লাহিড়ী বলেন, ‘একজন আধিকারিককে অপরাধী করা ঠিক হবে না। সহকারী অধ্যক্ষ প্রিয়ঙ্কর রায় যথেষ্ট দায়িত্বের সঙ্গে মেডিকেল কলেজ সামলাচ্ছেন। যদি কিট উধাও হয় তবে তদন্ত করা প্রয়োজন।’ এদিকে, তৃণমূলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগারওয়াল বলেন, ‘যদি মেডিকেল কলেজে কোনও দুর্নীতি হয় তবে কাউকে রেয়াত করা হবে না।’