একনায়কতন্ত্র ও প্রতিহিংসার অভিযোগ, পদত্যাগ স্বাস্থ্যকর্তার

81

বেলাকোবা: জেলা স্বাস্থ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা ও একনায়কতন্ত্রের অভিযোগ তুলে পদত্যাগ করলেন বেলাকোবা গ্রামীণ হাসপাতালের বিএমওএইচ ডঃ নিয়াজ আহমেদ। সোমবার তিনি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকেরর কাছে পদত্যাগ পত্র পাঠান। পাশাপাশি এর প্রতিলিপি পাঠিয়েছেন জলপাইগুড়ি জেলাশাসক ও কলকাতার স্বাস্থ্যভবনে।

জানা গেছে জেলার অন্যান্য ব্লকে ১৬ জানুয়ারি থেকে টিকাকরণ শুরু হলেও এই হাসপাতলে ২৯ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়। কেন এই বিলম্ব, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের বিরুদ্ধে। ১৭ মে টিকাকরণ নিয়ে ব্লক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। বিষয়টি নিয়ে বিএমওএইচকে চেয়ারপার্সন করে ৫ জনের কমিটি গড়ে ২২ ও ২৩ মে তদন্ত প্রক্রিয়া চলে। পরবর্তীতে বিএমওএইচ রিপোর্ট পাঠান ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে। এরপরই বিএমওএইচকে না জানিয়ে দুজন কমিউনিটি হেলথ অফিসার ও একজন ডাটা অপারেটরকে হাসপাতাল থেকে অন্যত্র বদলি করা হয়। এখানেই আপত্তি তোলেন বিএমওএইচ।

- Advertisement -

যদিও জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ডঃ রমেন্দ্রনাথ পরামানিক বলেন, ‘যাদের বদলি করা হয়েছে তারমধ্যে একজন বিএমওএইচ-এর স্ত্রী। এর কারণেই হয়তো এই রেজিগনেশন। পদ্ধতি মেনে রেজিগনেশন দিতে হয় এক্ষেত্রে তা হয়নি। সুতরাং পদত্যাগ অনুমোদিত হয়নি। বিএমওএইচের সঙ্গে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।‘ ডঃ নিয়াজ আহমেদ বলেন, ‘স্ত্রীকে বদলি করা হয়েছে বলে আমি পদত্যাগ করেছি তা সত্যি নয়। সততার সাথে হাসপাতাল প্রশাসন চালাতে পারছি না। ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের একনায়কতন্ত্র ও প্রতিহিংসামূলক আচরণের জন্যই পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছি।‘