টিকা দেওয়ায় টাকা লেনদেনের অভিযোগ, রায়গঞ্জ মেডিকেলে ক্ষোভ

154
ফাইল ছবি

রায়গঞ্জ: টাকার বিনিময়ে এক শ্রেণীর স্বাস্থ্যকর্মী করোনার টিকা বিক্রি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এই নিয়ে বুধবার টিকা নিতে আসা মানুষেরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। পরিস্থিতি সামাল দিতে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। প্রায় ২০০ এদিন টিকা না নিয়ে ফিরে যেতে বাধ্য হয়েছেন বলে অভিযোগ। তাঁরা জানান, কর্মীদের একাংশ টাকার বিনিময়ে পিছন দরজা দিয়ে অনেককে ঢুকিয়ে টিকা দিয়ে দিচ্ছে। ফলে নিয়ম মেনে টিকা নিতে আসা লোকজন হয়রান হচ্ছেন। রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ প্রিয়ঙ্কর রায় অবশ্য জানান, এমন কোনো অভিযোগ মেলেনি। অভিযোগ পেলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। এই ধরনের কোনও অনৈতিক কাজ বরদাশ্ত করা হবে না।

করোনার ভ্রুকুটির পর থেকেই মানুষের মধ্যে টিকা নেওয়ার প্রবণতা বেড়ে গিয়েছে। এদিন ৫০০ জন রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভিড় করেছিলেন টিকা নেওয়ার জন্য। শেষে টিকা না পেয়ে অনেকের অভিযোগ, টাকার বিনিময়ে পেছন দিক থেকে টিকা দেওয়া হচ্ছে। দীর্ঘ চার ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও অনেকে টিকা দিতে পারছে না। রায়গঞ্জের এক নার্সিং পড়ুয়ার অভিযোগ, টিকা নেওয়ার জন্য কলকাতা থেকে রায়গঞ্জে এসেও তিন দিনেও টিকা নেওয়া যায়নি। এদিন দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে এসেও প্রায় ৫০ জন বৃদ্ধ-বৃদ্ধাকে মেডিকেল কলেজ থেকে ফিরে যেতে হয় বলে অভিযোগ। যদিও স্বাস্থ্যকর্মীদের যুক্তি, সরকারি গাইডলাইন অনুযায়ী প্রথম থেকে দ্বিতীয় ডোজের ব্যবধান ৬ ও ৮ সপ্তাহের বদলে ১২ ও ১৬ সপ্তাহ করা হয়েছে। এটা না জেনে অনেকে চলে আসায় তাদের ফিরে যেতে হয়। এতেই অনেকে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন।

- Advertisement -