স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ

309

রায়গঞ্জ: স্ত্রীকে মারধর করে গলায় ফাঁস দিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামী সহ তাঁর পরিবারের লোকেদের বিরুদ্ধে। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে ইটাহার থানার সুরুন-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের বালিজোল এলাকার বসাকপাড়া গ্রামে। মৃতের নাম পুষ্প দাস দেবশর্মা (২২)। ঘটনার পর থেকে স্বামী গুলিয়া দেবশর্মা সহ তাঁর পরিবারের লোকেরা পলাতক।

পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসতালের মর্গে পাঠানোর পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, ইটাহার থানার বালিজোল এলাকার বসাকপাড়া গ্রামের বাসিন্দা গুলিয়া দেবশর্মার সঙ্গে বিহারের কাটিহার জেলার বারসই থানার বিকোর গ্রামের বাসিন্দা কমল দাসের মেয়ের প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে বিয়ে হয়। তাঁদের দু বছরের কন্যা সন্তান রয়েছে।

- Advertisement -

গৃহবধূর পরিজনদের অভিযোগ, গত কয়েকদিন ধরে স্বামী গুলিয়া দেবশর্মা স্ত্রী পুষ্প দেবশর্মাকে নেশাগ্রস্থ অবস্থায় এসে মারধর করছিল। প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতেও স্বামী গুলিয়া দেবশর্মা বাড়িতে এসে পুষ্পকে মারধর করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে ইটাহার থানার পুলিশ। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেয় রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

ঘটনার পর থেকে পলাতক স্বামী গুলিয়া দেবশর্মা সহ তাঁর পরিবারের লোকেরা। গৃহবধূর মা সন্ধ্যা দাস জানিয়েছেন, মদ খেতে বারণ করায় দীর্ঘদিন থেকেই অশান্তি চলছিল। গতকালও একই ঘটনা ঘটায় পুষ্পকে মারধর করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে খুন করে জামাই। অভিযুক্ত গুলিয়া দেবশর্মার উপযুক্ত শান্তি চাই বলে দাবি জানান তিনি।