বিয়েবাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে আদিবাসী মহিলাকে গণধর্ষণের অভিযোগ

192
প্রতীকী

বর্ধমান: বিয়েবাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে এক আদিবাসী বিধবা মহিলাকে গণধর্ষণের অভিযোগে চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। পূর্ব বর্ধমানের গলসির ঘটনা। মূল অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বাকিদের খোঁজ চলছে।

নির্যাতিতার বড় মেয়ে পুলিশে অভিযোগ জানান, বৃহস্পতিবার তাঁর মা পাশের পাড়ার একটি বিয়েতে গিয়েছিলেন। রাত ২টা নাগাদ ওই এলাকার এক যুবক তাঁর মাকে জোরপূর্বক বিয়েবাড়ি থেকে তুলে নিয়ে একটি মোবাইল টাওয়ারের কাছে নিয়ে যায়। যুবকের অসৎ উদ্দেশ্য বুঝতে পেরে তাঁর মা চিৎকার শুরু করলে ওই যুবক ও তাঁর সঙ্গীরা তাঁর মাকে মারধর করে। এমনকি তাঁর গয়নাও কেড়ে নেয়। অভিযোগ, এরপর ওই যুবক ও তাঁর চার সঙ্গী মিলে ওই মহিলাকে গণধর্ষণ করে। ঘটনাস্থলেই অচৈতন্য হয়ে পড়েন ওই মহিলা। নির্যাতিতার বড় মেয়ের আরও দাবি, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর মাকে কুপ্রস্তাব দিত ওই যুবক। লোকলজ্জার ভয়ে তাঁর মা এই নিয়ে মুখ খোলেননি। এদিন হুঁশ ফেরার পর তাঁর মা প্রতিবেশী ও স্থানীয় নেতাদের বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে গলসি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বর্ধমান হাসপাতালে পাঠায়। জেলার পুলিশ সুপার কামনাশিষ সেন জানিয়েছেন, ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।

- Advertisement -