সদ্যোজাত নিখোঁজের অভিযোগ, উত্তপ্ত রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ

122

রায়গঞ্জ: সদ্যোজাত পুত্র সন্তান নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠল রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল চত্বর। এই ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে শিশুর পরিবার বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। পরবর্তীতে হাসপাতালের নার্স চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মীরা বাধা দিলে শুরু হয় হাতাহাতি। ঘটনাস্থলে পৌঁছায় রায়গঞ্জ থানার বিশাল পুলিশবাহিনী। পুলিশের মধ্যস্থতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। যদিও নিখোঁজ শিশুর কোন হদিস না মেলায় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে রাজ্য সড়ক অবরোধ করে দীর্ঘক্ষন বিক্ষোভ দেখাতে থাকে স্থানীয়রা। ফলে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় শহরে। ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ ও কমব্যাট ফোর্স।

সদ্যোজাতের বাবা নাজিমুদ্দিন আলির অভিযোগ, এদিন ভোর পাঁচটা নাগাদ তাঁর পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। বেডে আসার কিছুক্ষণ পরে স্ত্রী দেখতে পায় তাঁর পুত্র সন্তান নেই। এরপর নাজিমুদ্দিন আলি বিষয়টি নিয়ে অভিযোগ করতে গেলে তাঁকে মারধর করে গাইনি বিভাগের চিকিৎসক নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা। এ বিষয়ে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশ এ ব্যপারে ব্যবস্থা না নিলে গ্রামবাসীদের নিয়ে এসে থানা ঘেরাও করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয় শিশুর পরিবারের তরফে।

- Advertisement -

রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যক্ষ প্রিয়ঙ্কর রায় বলেন, ‘এদিন সকাল থেকেই হাসপাতাল ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ হয়েছে। আমরা একটা অভিযোগ পত্র পেয়েছি ফরেনসিক ডিপারমেন্টে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।’ যদিও মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার দুপুর ১২টা নাগাদ রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের এলেঙ্গিয়ার বাসিন্দা সেলিনা খাতুন প্রসব বেদনা নিয়ে ভর্তি হন। এদিন ভোর রাতে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাঁর পেট থেকে কাপড় পাওয়া যায়। রায়গঞ্জ থানার আইসি সুরজ থাপা বলেন, ‘পরিবারের তরফে একটি অভিযোগ পত্র পেয়েছি তদন্ত চলছে।’