কোচবিহারের মরিচবাড়িতে তৃণমূল কর্মীকে খুনের অভিযোগ

201

পুণ্ডিবাড়ি: কোচবিহার জেলার পুণ্ডিবাড়ি থানার দক্ষিণ মরিচবাড়ি এলাকায় এক তৃণমূল কর্মীকে খুনের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার ভরসন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। মৃতের নাম নধিরাম মণ্ডল (৬০), বাড়ি মরিচবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের ৩/৫১ নম্বর বুথের টাঙ্গাইলপাড়ায়। এদিন তাঁর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয়েছে। শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তৃণমূলের দাবি, নধিরামবাবু দলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। তাঁকে খুন করা হয়েছে। মৃতের পরিবারের তরফে পুণ্ডিবাড়ি থানায় এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। মৃত্যুর পেছনে কোনও রাজনৈতিক নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে, তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। এদিন রাতে মৃতের বাড়িতে যান তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাবুরহাট লাগোয়া রাস্তার ধারে ফাঁকা জমিতে এদিন মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন পথচলতি কয়েকজন মানুষ। খবর ছড়িয়ে পড়তেই স্থানীয়রা সেখানে ভিড় করেন। এরপর প্রথমে বাণেশ্বর পুলিশ ফাঁড়িতে খবর দেওয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরে পুণ্ডিবাড়ি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কোচবিহার এমজেএন মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। কিন্তু কী কারণে এদিন ভরসন্ধ্যায় ওই ব্যক্তি খুন হলেন, তাঁর সঙ্গে কারও কোনও  শত্রুতা ছিল কিনা, সেবিষয়ে কেউ কিছু বলতে পারেননি।

- Advertisement -

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, নধিরামবাবু প্রথমদিকে সিপিএম করতেন। পরবর্তীতে তিনি তৃণমূলে যোগদেন। তৃণমূল নেতা তথা কোচবিহার জেলা পরিষদের সদস্য পরিমল বর্মন জানান, নধিরাম মণ্ডল তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সক্রিয় কর্মী। প্রত্যেক মিটিং-মিছিলে তাঁকে দেখা যেত। এদিন সন্ধ্যায় তাঁকে কেউ বা কারা খুন করেছে। এটি অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাস্থল থেকে একটি ধারালো ছুরি উদ্ধার হয়েছে। এছাড়াও মৃত ব্যক্তির মাথা ও শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মৃতের পরিবারের তরফে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।