বন্ধ মধু চা বাগানে র‍্যাশনে কম চাল দেওয়ার অভিযোগ

264

সমীর দাস, হাসিমারা: লকডাউনের জেরে এমনিতেই চা বাগানের শ্রমিকরা আর্থিক সংকটে ভুগছেন। তার ওপর কোনও কোনও চা বাগানে র‍্যাশনে কম সামগ্ৰী দেওয়ার অভিযোগে শ্রমিকদের মনে ক্ষোভ পুঞ্জিভূত হতে শুরু করেছে।

এর আগে সাতালি চা বাগানের আউট ডিভিশনে র‍্যাশনে কম আটা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এবারে র‍্যাশনে কম চাল দেওয়ার অভিযোগ উঠল ব্লকের বন্ধ মধু চা বাগানের স্বনির্ভর গোষ্ঠী পরিচালিত একটি র‍্যাশন বণ্টন কেন্দ্রে। শ্রমিকদের অভিযোগ, শনিবার সকাল থেকে ওই র‍্যাশন কেন্দ্র থেকে প্রত‍্যেক শ্রমিককে ২ থেকে ৫ কিলোগ্ৰাম কম চাল দেওয়া হচ্ছিল। প্রায় ৪০ জন শ্রমিককে কম চাল দেওয়ার অভিযোগে শ্রমিকরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন‌।

- Advertisement -

বিক্ষোভের জেরে র‍্যাশন বণ্টন কিছু সময়ের জন‍্য বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে হাসিমারা ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ফের সঠিক ওজনে র‍্যাশন দেওয়া শুরু হয়। সাতালি গ্ৰাম পঞ্চায়েতের প্রধান মনোজ বরুয়া বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। প্রশাসনকে ওই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে দ্রুত পদক্ষেপ করার দাবি জানাব। তাঁর অভিযোগ, ওই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক বার কম র‍্যাশন সামগ্ৰী দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু লকডাউন চলতে থাকায় শ্রমিকরা এমনিতেই বিপাকের মধ‍্যে রয়েছেন। তার ওপর সরকারি র‍্যাশন নিয়ে এমন কারচুপি মানা যায় না।

বাগানের শ্রমিক পাঞ্চিলা ওরাওঁ বলেন, দীর্ঘ কয়েক বছর বাগান বন্ধ। তার ওপর লকডাউন থাকায় আমরা অন‍্যত্র কাজ করতে যেতে পারছি না। খাদ‍্য সংকট দেখা দিয়েছে। তাই এই পরিস্থিতিতে কম র‍্যাশন সামগ্ৰী দিলে আমরা মানব না। আরেক শ্রমিক হিরা লোহার বলেন, এদিন সকাল থেকেই অনেক শ্রমিক তাঁদের প্রাপ‍্য চাল থেকে বঞ্চিত হচ্ছিলেন বলে বিক্ষোভ দেখান শুরু করি। এরপর র‍্যাশন বণ্টনের প্রথম থেকেই আমরা পুলিশি প্রহরার আবেদন জানাচ্ছি।

কালচিনির ভিডিও ভূষণ শেরপা বলেন, শ্রমিকদের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে। অভিযোগ প্রমানিত হলে ওই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত স্বনির্ভর গোষ্ঠী কালজানি মহিলা সংঘের সভাপতি আরতি বিশ্বকর্মা বলেন, গোষ্ঠীর কয়েকজন কর্মী ভুল করে কিছু শ্রমিকদের বেশি চাল ও কিছু শ্রমিককে কম চাল দেন। ভুল বুঝতে পেড়ে চালের সঠিক ওজনে সবাই কে বিতরণ করা হয়েছে।