দাপিয়ে বেড়াচ্ছে তৃণমূল ছাত্র নেতার খুনে অভিযুক্তরা, ক্ষোভে বিজেপিতে যোগ পরিবারের

114

দিনহাটা: ছেলের খুনের সুবিচার না পেয়ে তৃণমূল নেতৃত্বের প্রতি তীব্র ক্ষোভে দল ত্যাগ করলেন দিনহাটা কলেজের তরুণ তৃণমূল কর্মী অলোক নিতাই দাসের পরিবার। ২০১৮ সালে ৪ অক্টোবর দিনহাটা কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বে খুন হয়েছিল দিনহাটা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র অলোক নিতাই দাস। সে সময় জেলা রাজনীতি থেকে শুরু করে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল হয়ে উঠেছিল এই ছাত্র খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে। অলোক নিতাই দাসের পরিবারের আশা ছিল হয়তো ছেলের খুনিরা ধরা পড়বে বিচার হবে। কিন্তু তা না হওয়ায় এদিন কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিকের ভেটাগুড়ির বাড়িতে গিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন অলোক নিতাই দাসের বাবা হেমন্ত দাস ও মা কদমবালা দাস। উপস্থিত ছিলেন বিজেপি সংখ্যালঘু মোর্চার উত্তরবঙ্গের কো-কনভেনার আনোয়ার হোসেন।

এদিন দিনহাটার বিদায়ী বিধায়ক তথা বর্তমান তৃণমূল প্রার্থী উদয়ন ঘোষের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে অলোক নিতাই দাসের বাবা জানান, উদয়ন গুহের ঘনিষ্ঠরাই এই খুন করেছে।বারবার ফিরহাদ হাকিম সহ তৃণমূল নেতৃত্বদের বলা সত্ত্বেও ফের উদয়ন গুহকে প্রার্থী করা হয়েছে। যারা ছেলেকে খুন করেছে তারা প্রতিনিয়তই হুমকি দিয়ে জানাচ্ছে মামলা করে কোনও ফল হবে না।অসহায় পরিস্থিতির মধ্যে থাকতে থাকতে বাধ্য হয়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছি।

- Advertisement -

উল্লেখ্য অলক নিতাই দাস খুনে নাম জড়ায় উদয়ন গুহের ঘনিষ্ট দিনহাটা পুরসভার কাউন্সিলর জয়দীপ ঘোষ, তৃণমূল নেতা সাবির সাহা চৌধুরী সহ ২০ জনের। প্রথমে তৃণমূল চাপে পড়ে অভিযুক্তদের কয়েকজনকে বহিস্কার করলেও পরে তাদের অনেকেই আবার দলে ফিরেছেন। ফলে আর সুবিচারের কোনও আশায় দেখতে পায়নি অলোক নিতাই দাসের পরিবার।এদিন বিজেপিতে যোগ দান করতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন অলোক নিতাই দাসের বাবা-মা।বাবা হেমন্ত দাস জানান, ছেলের স্মৃতি আজও ভুলতে পারেননা।যারা ওকে খুন করেছে তারাই বুক ফুলিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক জানান, তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদের দরজায় দরজায় ঘুরেও সুবিচার পাননি অলোক নিতাই দাসের বাবা মা। সেই কষ্ট অনুভব করতে পেরেই তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।