সিরিয়ার ক্লাবের সঙ্গে কথা, দেশে ফেরার চেষ্টা আমনার

সুস্মিতা গঙ্গোপাধ্যায়, কলকাতা : খালিদ জামিলের প্রতি তাঁর দুর্বলতা সকলেরই জানা। মুম্বইকর কোচের খুব খারাপ সময়ে সম্ভবত মাহমুদ আল আমনাই একমাত্র ফুটবলার যিনি তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন। একইভাবে আমনা এখনও মনে করছেন, খালিদের পক্ষে এককভাবে কোনও আইএসএল দলকে কোচিং করানো সম্ভব।

আপাতত সাউথ সিটির ফ্ল্যাটে ঘরবন্দি আমনা। নিজের দেশের রাজনৈতিক সমস্যার জন্য গত চারবছর ধরে পরিবার সহ এখানেই থাকেন সিরিয়ান মিডফিল্ডার। এর মধ্যে যোগাযোগ করেছেন সিরিয়ার কিছু ক্লাবের সঙ্গে। সেখানে ইতিমধ্যেই খেলাধুলো শুরু হয়ে গিয়েছে। লিগও শুরু হয়েছে। তাই সিরিয়ায় ফিরে যাবেন বলে ঠিক করেছেন। আমনা জানালেন, আশা করছি, এ দেশেও দ্রুত খেলাধুলো শুরু হয়ে যাবে। তবে আমি সিরিয়াতেই ফিরে যাব বলে ঠিক করেছি। কারণ ওখানে ফুটবল শুরু হয়ে গিয়েছে। আর আমি বসে থাকতে চাই না। ওখানেই গিয়ে খেলব। পরে যদি আবার ফিরতে পারি তখন দেখা যাবে। এবার পরিবার নিয়ে ফিরে যাবেন বলে ঠিক করেছেন। তবে সিরিয়ায় নয়, প্রথমে যাবেন মিশরে।

- Advertisement -

সিরিয়া যুদ্ধবিধ্বস্ত বলেই স্ত্রীর দেশ মিশরে বহুকাল ধরে থাকছেন আমনা। বলছিলেন, আমার বাচ্চাদের স্কুলের পরীক্ষার জন্য আটকে পড়েছি। ঠিক ছিল, মার্চে ফিরে যাব মিশরে। কিন্তু হঠাৎই লকডাউন হয়ে যাওয়ায় এখন ঘরবন্দি। তবে দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছি, সবুজ সংকেত পেলেই দ্রুত চলে যাব এখান থেকে। এখনও খেলতে চান আমনা। কোচিং নিয়ে ভাবছেন না। জানালেন, লাইসেন্সিং কোর্স করার ইচ্ছা আছে। কিন্তু খেলা ছাড়ার পরেই ভাবব ওসব নিয়ে। মুখ খুললেন তাঁর প্রাক্তন কোচের হয়ে, যাঁকে তিনি অন্যতম ভালো বন্ধু বলেও মনে করেন। খালিদ জামিলের কোচিং প্রসঙ্গে আমনার বক্তব্য, আমি দুটো মরশুম খালিদের অধীনে খেলেছি। যার মধ্যে আইজলের হয়ে আই লিগ এবং ইস্টবেঙ্গলে কলকাতা লিগ জেতা ছাড়াও সুপার কাপের ফাইনাল খেলেছি।

তিনি বলেন, খালিদ অত্যন্ত সুভদ্র একজন মানুষ। ওঁর অধীনে আমার অভিজ্ঞতা অত্যন্ত ভালো। খালিদকে দেখেছি, ট্যাকটিসিয়ান হিসেবে ক্ষুরধার। প্রত্যেককে গুরুত্ব দেন দলে। অনেক কোচের অধীনে খেলেছি কিন্তু খালিদ আমার অত্যন্ত প্রিয়। খালিদ জামিল গত মরশুম থেকে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করছেন। মরশুমের শেষ দিকে চিফ কোচ রবার্ট জার্নি পদত্যাগ করার পর এককভাবে দল সামলান তিনি। আইএসএলের নতুন নিয়মে এএফসি প্রো-লাইসেন্স কোচেরা আগামী মরশুম থেকে এককভাবে কোচিং করাতে পারবেন। আমনার মন্তব্য, অবশ্যই ভারতীয় কোচেদেরও সুযোগ পাওয়া উচিত। খালিদের প্রো-লাইসেন্স আছে, সঙ্গে অভিজ্ঞতাও। ওঁ যদি ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের মতো বড় ক্লাবে কোচিং করাতে পারেন তাহলে আইএসএলে কেন পারবেন না? ভবিষ্যতে কোচিংয়ে এলে খালিদের সঙ্গেও কাজ করতে চান আমনা।