অজয় চক্রবর্তীর সঙ্গে দেখা করে গান শুনলেন অমিত

402

কলকাতা: দক্ষিণেশ্বরের ভবতারিণী মন্দিরে পুজো দিয়ে সেখান থেকে বেড়িয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা সোজা চলে যান দক্ষিণ কলকাতা টালিগঞ্জের উদয় শংকর সরণিতে। সেখানে পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর সঙ্গে তাঁর সাক্ষাৎ করার কথা আগে থেকেই নির্ধারিত ছিল। সেই মতো তিনি পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর সংগীত বিদ্যালয় শ্রুতি নন্দনে গিয়ে হাজির হন। সেখানে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পৌঁছানোর অনেক আগে থেকেই দলীয়কর্মী সমর্থক এবং সাধারণ মানুষের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। অমিত শা সেখানে গিয়ে ২০ মিনিট পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যেমন কথা বলেন, তেমনই অজয় চক্রবর্তীর শিষ্য-শিষ্যাদের নিয়ে রেকর্ড করা ও স্বকণ্ঠে গাওয়া দুটি গানও শোনেন।

পরে সেখান থেকে তিনি বেরিয়ে সোজা চলে যান বিধাননগরের ইজেডসিসিতে। সেখানে রয়েছে দলের কলকাতা ও নদিয়া বিভাগের কর্মী বৈঠক।

- Advertisement -

এদিন পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আমিত শাহ সাংবাদিকদের কাছে কোনো মন্তব্য না করলেও পণ্ডিত অজয় চক্রবর্তী জানান যে, তিনি নিজে সঙ্গীত জগতের মানুষ। তাঁর কাছে অনেকেই আসেন। অমিত সাহাকে তিনি আমন্ত্রণ জানাতে পারেননি ঠিকই তবে অমিত শাহ নিজে তাঁর কাছে বা তাঁর সংগীত নিকেতনে আসায় তিনি খুব খুশি। যেহেতু তিনি সঙ্গীত জগতের মানুষ তাই সংগীতের বেশি কিছু জানেন না। রাজনীতি ও বোঝেন না। তাঁর শিষ্যরা তাকে দুটি গান শুনিয়েছেন বলেও তিনি জানান।

পরে এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে অজয় চক্রবর্তী জানান, অমিত শাহর মত একজন ক্ষমতাসীন ব্যক্তি তাঁর মতন এক প্রাথমিক শিক্ষকের ছেলের বাড়িতে আসায় তিনি গর্বিত তিনি নিজেই জানিয়ে দেন হয়তো অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগতে পারে তিনি কি বিজেপি দলে যোগ দেবেন?

তিনি জানান তাঁর পার্টি হল মিউজিক পার্টি। আর সেই মিউজিক পার্টির বাইরে তিনি অন্য কিছু জানেন না। তিনি মানুষকে ভগবান বলে মানেন। তাই যে কোনো মানুষই তাঁর কাছে ঈশ্বর মতন। অমিত শার মতন একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি তাঁর বাড়িতে আশায় তিনি নিজেকে যেমন ধন্য মনে করেছেন, তেমনি সেটি তাঁর গুরুদের আশীর্বাদ বলে মনে করেন।

সেই সঙ্গে তিনি অবশ্যই জানান যেকোন মানুষ যদি নিজের অহংকারকে বাদ দিয়ে আত্মসমালোচনা করে তাহলে হয়ত এ রকমই পুরস্কার পাওয়া যায়। এদিন এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন যে, তাঁর সঙ্গে অমিত বাবুর কোনো রাজনৈতিক কথাবার্তা হয়নি। কারণ তিনি রাজনীতি জানেন না, বোঝে না।

তবে বিনয়ের সঙ্গে অমিত বাবু তাকে জানিয়েছেন যে ,তাঁর সংগীত জগত নিয়ে আরও এগিয়ে চলার আবেদন সেই সঙ্গে তিনি তাকে জানিয়েছেন যে যদি কোনওদিন তিনি দিল্লিতে যান এবং সময় পান তাহলে তাঁর বাড়িতে যেন তিনি আতিথেয়তা গ্রহণ করেন। তিনি এদিন আবারও বলেন, অমিত শাহের যে বিনম্র শ্রদ্ধা তাকে জানিয়েছেন তাদের তিনি অভিভূত।