আসানসোল সহ ৩ দূরদর্শন কেন্দ্র বন্ধের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে ক্ষোভ

190

আসানসোল: বিজেপির পরিচালনায় বর্তমান কেন্দ্র সরকার ক্ষমতায় আসার পর আসানসোল শিল্পাঞ্চলের রূপনারায়নপুরের হিন্দুস্তান কেবলস বা বার্নপুরের বার্ন স্ট্যান্ডার্ডের মত কারখানা বন্ধ করেছে। এবার দীর্ঘ প্রায় চার দশকের বেশি সময় ধরে চলতে থাকা আসানসোল দূরদর্শন সম্প্রচার কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল নরেন্দ্র মোদির সরকার। জানা গিয়েছে, আগামী ৩১ অক্টোবর রাত ১২টার পর থেকেই আসানসোল কেন্দ্রটি সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে যাবে। দেশের দূরদর্শন কেন্দ্রগুলির দায়িত্বে থাকা ডিরেক্টর জেনারেল এমনই নির্দেশ পাঠিয়েছেন। শুধু আসানসোল নয়, বহরমপুর ও কার্শিয়াং কেন্দ্র দুটিও বন্ধ করার কথা নির্দেশে বলা হয়েছে।

আসানসোলের কেন্দ্রটি বন্ধ হওয়ার ফলে আসানসোলের চারপাশের ১২০ কিলোমিটার থেকে ২০০ কিলোমিটারের মধ্যে যে সমস্ত মানুষেরা কেবল লাইন ও ডিটিএইচ ছাড়াই দূরদর্শনের সম্প্রচার দেখতে পেতেন তারা আর সেই সুযোগ পাবেন না। আসানসোল দূরদর্শন কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রধান আধিকারিক ধনঞ্জয় নিয়োগী বলেন, ‘আমাদের কাছে কেন্দ্রটি বন্ধ করার ব্যাপারে ডিজির চিঠি এসেছে। দূরদর্শন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যেহেতু আসানসোল কেন্দ্রের টেকনোলজি পুরোনো দিনের বা অ্যানালগ সিস্টেমের। ডিজিটাল ব্যবস্থাকে উৎসাহ দেওয়ার জন্যই এটা বন্ধ করা হচ্ছে। এই নতুন সিদ্ধান্তের ফলে কোনও দর্শককে এবার দূরদর্শনের কোনও অনুষ্ঠান এই এলাকায় দেখতে হলে ডিটিএইচ ব্যবস্থা বা কেবল লাইনের সাহায্য নিতে হবে।

- Advertisement -

আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় বলেন, ‘যখন প্রসার ভারতীর সিইও জহর সরকার ছিলেন তখন আমি তার সঙ্গে আসানসোলের দূরদর্শন কেন্দ্রটিতে আধুনিক টেকনোলজি আনা নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। আমার কথায় কেন্দ্র সরকার কিছু করেনি। এবার আমি তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলে দেখব কী করা যায়।’

আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভার বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পাল বলেন, ‘আসানসোলের দূরদর্শন কেন্দ্রের সঙ্গে আমার একটা আবেগ জড়িয়ে আছে। আমি কেন্দ্র সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রীর কাছে অবিলম্বে চিঠি পাঠিয়ে আবেদন করব টেকনোলজির জন্য বন্ধ না করে এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা হোক।’