সন্ধ্যার পরে ব্লাড ব্যাংক বন্ধের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে ক্ষোভ

249

চাঁচল: সন্ধ্যা ৫ টার পর শুধুমাত্র গর্ভবতী মায়েদের রক্ত দেওয়া যাবে। বাকি রোগীদের জন্য সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৫ টা পর্যন্ত। চাঁচল সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের এই ফতোয়াকে ঘিরে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে গোটা মহকুমাজুড়ে। সন্ধ্যা ৫ টার পর ব্লাড ব্যাংক বন্ধ কেন? এই প্রশ্ন ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

রবিবার থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত এক শিশুকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু চাঁচল সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালে তার জন্য রক্ত ছিল না। সামাজিক মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে রক্ত দিতে হাসপাতালে হাজির হয়েছিলেন এক যুবক। কিন্তু ব্লাড ব্যাঙ্কে সন্ধ্যা ৫ টার পর তালা ঝুলছিল। ফোন করলেও কর্মীদের কেউ এসে রক্ত সংগ্রহ করতে রাজি হননি বলে অভিযোগ। আর ওই ঘটনাকে ঘিরে চাঁচল ব্লাড ব্যাঙ্কের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সরব হয়েছে মালদা জেলার ভলেন্টারি ব্লাড ডোনারস ফোরাম।

- Advertisement -

হাসপাতাল সূত্রে খবর, এই হাসপাতালের বহু কর্মীকে মালদহের কোভিড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফলে কর্মীসংখ্যা কমে যাওয়ায় কিছুটা সমস্যা হয়েছে। তারপরেও পরিষেবা যাতে ব্যাহত না হয় সেই চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ব্লাড ব্যাঙ্কে সাতজনের পরিবর্তে এখন তিনজন টেকনিশিয়ান রয়েছেন। জিডিএ কর্মী পাঁচজনের বদলে রয়েছেন তিনজন। তাছাড়া ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নেই, নার্স নেই। করোনাকালে হাসপাতালে কর্মী সংখ্যা কম থাকায় সমস্যা হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্রে দাবি করা হয়েছে। পাশাপাশি ব্লাড ব্যাঙ্কে তালা থাকার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলেও কর্তৃপক্ষের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

ফোরামের সম্পাদক আলমগীর খান বলেন, ব্লাড ব্যাংক ২৪ ঘন্টা খোলাসহ মোট পাঁচ দফা দাবি চাঁচল মহকুমা শাসকের নিকট জানানো হয়েছে। প্রশাসনকে লিখিতভাবে জানানোর পর নড়েচড়ে বসে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। যাতে সমস্যা মেটে সেজন্য বিষয়টি প্রশাসনকেও জানিয়েছি।

সোমবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসে ফোরাম। সেখানে ব্লাড ব্যাঙ্কের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দ্রুত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করার কথা বলা হয়। কেন নিয়ম বহির্ভূতভাবে ব্লাড ব্যাঙ্কে তালা থাকবে সেই প্রশ্নও তোলা হয়। কতৃপক্ষের সঙ্গে কথা হয়েছে। ওরা সমস্যা মিটে যাবে বলে জানিয়েছেন।

ফোরামের আরও অভিযোগ, ব্লাড ব্যাঙ্কে এমনিতেই রক্ত সংকট। এক্ষেত্রে মহকুমার রক্তযোদ্ধারা নানাভাবে রক্ত যোগান দিয়ে সাহায্য করে চলেছেন। কিন্তু রবিবার রক্ত দিতে গিয়ে দেখা যায় ব্লাড ব্যাঙ্কে তালা ঝুলছে। অথচ ব্লাড ব্যাঙ্ক ২৪ ঘন্টা খোলা থাকার কথা। পাশাপাশি সন্ধের পরে প্রসূতি ছাড়া কাউকে রক্ত দেওয়া যাবে না বলে ব্লাড ব্যাঙ্কে বিজ্ঞপ্তি ঝোলানো হয়েছে। যা নিয়ম বিরুদ্ধ। এরফলে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে জনমানসে।

চাঁচল সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতালের সুপার ওয়াসিম রানা জানান, কর্মীরা রবিবার রক্তদান শিবিরে যাওয়ায় কিছুক্ষণের জন্য ব্লাড ব্যাঙ্কে তালা বন্ধ ছিল। পরে ফোন পেয়েও কেন কোনও কর্মী রক্ত সংগ্রহ করেননি তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এরপর এমন যাতে না হয় তা দেখা হবে।