শীঘ্রই ঘোষণা হতে পারে তৃণমূলের পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি

571

ফালাকাটা: ফালাকাটায় তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে এবার নতুন মুখই মূল ভরসা। এই বিধানসভা কেন্দ্রে দক্ষ ও প্রবীণ নেতাদের মৃত্যুতে কিছুটা নেতৃত্বের সংকটে রয়েছে তৃণমূল। এজন্য দল পরিচালনায় নতুন মুখ খুঁজে নিতে হচ্ছে তৃণমূলের ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোরকে। পিকে’র টিমের নির্দেশে দুর্গাপুজোর আগেই দলের ব্লক সভাপতি পদে নতুন মুখ হিসেবে সুভাষ রায়ের নাম ঘোষণা করা হয়। তৃণমূল যুব-র ব্লক সভাপতিও বদল করা হয়।

সূত্রের খবর, পিকে’র টিমকে নতুন মুখ খুঁজে নিয়ে পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি তৈরি করতে কিছুটা সময় লেগে যায়। তবে বিধানসভা নির্বাচন দোরগোড়ায় থাকায় খুব শীঘ্রই পূর্ণাঙ্গ ব্লক ও অঞ্চল কমিটিগুলি ঘোষণা করবে তৃণমূল। কিছু অঞ্চল কমিটিতেও রদবদলের সম্ভাবনা রয়েছে। সব ক্ষেত্রে নতুনদের প্রাধান্য দিচ্ছেন পিকে। আলিপুরদুয়ার জেলায় এক সময় তৃণমূল কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি ছিল ফালাকাটা। প্রয়াত শ্যামল ভদ্র ও অনিল অধিকারির নেতৃত্বেই দলের সাংগঠনিক ভিত মজবুতভাবে গড়ে ওঠে ফালাকাটায়। তবে গত বছর বিধায়ক অনিল অধিকারির মৃত্যুর পর দলের সাংগঠনিক ভিত নড়বড়ে হতে শুরু করে।

- Advertisement -

গত পঞ্চায়েত ও লোকসভা নির্বাচনেও এই আসনে বিজেপির কাছে ধাক্কা খায় শাসক দল। এদিকে দুর্গাপুজোর আগে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি সন্তোষ বর্মন, ব্লক কার্যনির্বাহী সভাপতি রণেশ রায়তালুকদার, ফালাকাটা-২ অঞ্চল সভাপতি চঞ্চল অধিকারির মৃত্যু হয়। একের পর এক দক্ষ ও প্রবীণ নেতার প্রয়াণে অভিভাবকহীন হয়ে পড়ে তৃণমূল কংগ্রেস। এই পরিস্থিতিতে দলের শীর্ষ মহলের পাশাপাশি পিকে’র টিমও ফালাকাটার দিকে বাড়তি নজর দিচ্ছে। পিকে’র নির্দেশে জনসংযোগমূলক একাধিক অভিনব কর্মসূচি ফালাকাটায় হচ্ছে। এদিকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের জন্য নতুন মুখের সন্ধ্যান চালিয়ে যায় পিকে’র টিম।

কারণ, কমিটির অন্যান্য পদ ঘোষণা না হওয়ায় এককভাবে নতুন সভাপতি হিসেবে সুভাষ রায়ের ওপর চাপ অনেকটাই বেড়েছে। আবার যুব তৃণমূলের ব্লক সভাপতির পদ খোয়ানোয় সঞ্জয় দাস দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বিদ্রোহ ঘোষণা করেন। দলের এই কোন্দলকেও সামাল দিতে হচ্ছে পিকে’র টিমকে। সব কিছু বিবেচনা করে পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষণা করতে চলেছে তৃণমূল। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বা আগামী শুক্রবার কমিটি ঘোষণা হতে পারে। এক্ষেত্রে কোনও দ্বন্দ্ব যাতে আর প্রকাশ্যে না আসে সেব্যাপারেও সতর্ক রয়েছে পিকে’র টিম।

পুজোর আগে দলের ব্লক সভাপতির নাম সহ দু’জন সহ সভাপতি ও একজন সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করে পিকে’র টিম। আর শাখা সংগঠনের মধ্যে যুব তৃণমূলের নতুন ব্লক সভাপতির নাম ঘোষনা করা হয়। কিন্তু দল পরিচালনায় ব্লক কমিটিতে এছাড়াও আরও সাধারণ সম্পাদক, সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, ব্লকের এগজিকিউটিভ কমিটি ও ব্লক কমিটির সদস্যদের নাম ঘোষণা করা জরুরী। তবে বিধায়ক অনিল অধিকারির মৃত্যুর পর কয়েক মাস আগে প্রয়াত সন্তোষ বর্মন ব্লক সভাপতি থাকাকালীন একবার পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। ওই কমিটিতেও একাধিক নতুন মুখকে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

এখন যে কমিটি ঘোষণা হবে তাতে আরও কিছু নতুনদের নাম সংযোজন হতে পারে। কয়েকটি অঞ্চল কমিটির সভাপতির নামও নতুন ঘোষনা হবে। চঞ্চল অধিকারি মারা যাওয়ায় ফালাকাটা-২ অঞ্চলে নতুনদের থেকে কেউ অঞ্চল সভাপতির দায়িত্ব পেতে পারেন। এছাড়াও পুরোনো কয়েকজন অঞ্চল সভাপতি শারীরিক অসুস্থতার কারণে সংগঠনের কাজে সময় দিতে পারছেন না। সেক্ষেত্রেও নতুনদের দায়িত্ব দেওয়া হবে। এ প্রসঙ্গে দলের ব্লক সভাপতি সুভাষ রায় বলেন, ‘শীঘ্রই পূর্ণাঙ্গ ব্লক কমিটি ঘোষণা করা হবে। কমিটিতে কিছু সংযোজন হতে পারে। ফালাকাটা-২’এ অঞ্চল সভাপতির মৃত্যুর কারণে সেখানে নতুন কেউ দায়িত্ব পাবেন। এছাড়া নেতৃত্বের শারীরিক অসুস্থতার কারণে কয়েকটি অঞ্চলে কিছু রদবদল হবে।’