মালবাজারে ফের ২৪ জন করোনা আক্রান্ত

503

মালবাজার: মাল শহরে করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই। শুক্রবার শহরে নতুন করে ২৪ জনের করোনা সংক্রমনের হদিস মিলেছে। সব মিলিয়ে মাল শহরের মোট করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫৮ জন। অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার রাতে কাওয়াখালির কোভিড হাসপাতালে মাল শহরের পাশের টুনবাড়ি চা বাগানের এক বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে। প্রশাসনের তরফে সকলকে সচেতন থাকার আবেদন জানানো হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বার্তাও দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার মালবাজারের সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে মাল শহরের ১৩ জন বাসিন্দার করোনা সংক্রমণের হদিস মিলেছে। এছাড়া, গত ৩০ সেপ্টেম্বর মালবাজারের সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের মাধ্যমেও সংগৃহীত লালা নমুনা পরীক্ষার জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালের ভাইরাস রিসার্চ অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক ল্যাবরেটরি(ভিআরডিএল)তে পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকেও ১১ জনের করোনা সংক্রমনের হদিস মিলেছে। সব মিলিয়ে মাল শহরে এদিন নতুন করে ২৪ জনের করোনা সংক্রমণের হদিস মিলেছে। মাল পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে খবর, শহরের ১২ নম্বর ওয়ার্ডের ১১ জন নতুন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। এর মধ্যে ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর পুলিন গোলদারও আছেন। ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। ১, ৭ এবং ১২ নম্বর ওয়ার্ডে দু’জন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। ৪,৫,৮ এবং ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন। সবমিলিয়ে মাল শহরে করোনা সংক্রমিতের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫৮ জন।

- Advertisement -

অন্যদিকে, মাল শহরের পাশের টুনবাড়ি চা বাগানের ৩৯ বছর বয়সী এক বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে। স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে খবর, করোনা সংক্রমিত অবস্থায় তাকে জলপাইগুড়ির কোভিড হাসপাতাল থেকে কাওয়াখালীর কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানেই ৩৯ বছর বয়সী ওই বাসিন্দার মৃত্যু হয়েছে। মৃতের পরিবার সূত্রে খবর, ওই ব্যাক্তির করোনা সংক্রমনের পাশাপাশি যকৃতের সমস্যা ছিল। বেশ কিছুদিন যাবৎ তিনি রোগগ্রস্ত ছিলেন। বাগান সূত্রে খবর, মৃত বাসিন্দা বাগানের শ্রমিক ছিলেন না। তার স্ত্রী বাগানের শ্রমিক। এদিকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকলের কাছেই সচেতন এবং সতর্ক থাকার আবেদন জানানো হয়েছে। সকলকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে। আতঙ্কিত না হওয়ার আবেদন করা হয়েছে। মালের বিডিও বিমান চন্দ্র দাস বলেন, প্রশাসন এবং স্বাস্থ্য বিভাগ সমস্ত ক্ষেত্রে যথোপযুক্ত পদক্ষেপ নিচ্ছে।