২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ফের বোমা উদ্ধার বর্ধমানে

153

বর্ধমান: পঞ্চম দফার ভোট পর্ব শেষ হয়েছে শনিবার। তার পর থেকেই দফায় দফায় কৌটো বোমা উদ্ধারের ঘটনায় আতঙ্কে বর্ধমানের স্থানীয়রা। এদিকে বোমা উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে অভিযোগ পালটা অভিযোগে সরব রাজনাতিক দলগুলি। যদিও স্থানীয়রা অবশ্য রাজনৈতিক তরজায় কান না দিয়ে শান্তির বাতাবরণ ফিরিয়ে আনার দাবি তুলে ধরেছেন পুলিশ প্রশাসনের কাছে।

রবিবার বর্ধমানের তালিতের ঝাপানতলায় একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ৫টি তাজা কৌটো বোমা। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই সোমবার সকালে বর্ধমানের দুবরাজদিঘীর হরেরডাঙ্গা এলাকার থেকে উদ্ধার হল একটি কৌটো বোমা। স্থানীয় সূত্রে খবর, তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি ইফতিকার আহমেদের বাড়ির পাশে ওই কৌটো বোমের হদিশ মেলে এদিন। জানা গিয়েছে সকালে এক শিশু খেলার জিনিস ভেবে কৌটো বোমা নিয়ে খেলছিল। বিষয়টি শিশুটির মায়ের নজরে আসতেই সন্দের বশে তা বাড়ির বাইরে ছুড়ে ফেলে দেন। এরপরেই লক্ষ্য করা যায় স্প্রিন্টার, বারুদ। তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেটি উদ্ধার করে। ঘটনায় আতঙ্কিত স্থানীয়রা।

- Advertisement -

ওই শিশুর মা জেভা পারভিন বলেন, ‘বরাত জোরে আমি আর আমার প্রাণে বাঁচি। বোমাটি ফেটে গেলে কি হত তা ভেবে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছি। হয়তো আমি আর আমার সন্তান শেষ হয়ে যেতাম।’

অন্যদিকে তৃণমূল নেতা ইফতিকার আহম্মদ অভিযোগ করে বলেন, ‘এসব বিজেপির কাজ। আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টির জন্য বিজেপির লোকজন একাজ করছে।’ যদিও তৃণমূলের তরফে তোলা অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপির শহর বর্ধমানের আহ্বায়ক কল্লোল নন্দন। পালটা অভিযোগের সুর চড়িয়ে তিনি বলেন, ‘বোমা বারুদের রাজনীতি একমাত্র তৃণমূলই করে।’