পূর্ব বর্ধমানে আরও দুই করোনা আক্রান্তের হদিস

578
পাহাড়হাটিতে তথ্য সংগ্রহ করছে পুলিশ

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় আরও দুই করোনা আক্রান্তের হদিস মিলল। তারমধ্যে ৪৮ বছর বয়সি করোনা আক্রান্ত এক মহিলার বাড়ি মেমারি থানার পাহাড়হাটি এলাকায়। যদিও ওই মহিলা গত ৫ মে থেকে ভর্তি রয়েছেন কলকাতার ঢাকুরিয়ার একটি বেসরকারী হাসপাতালে। রবিবার সকালে মহিলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। রাতে রিপোর্ট এলে দেখা যায়, ওই মহিলা করোনা পজিটিভ।

অন্যদিকে, সোমবার রাতে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কাটোয়া মহকুমার কেতুগ্রামের আরও এক মহিলার করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। এই নিয়ে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁডাল ছয়। বিষয়টি জানার পর তৎপর হয়েছে জেলা পুলিশ ও প্রশাসন।

- Advertisement -

সোমবার সকালে পুলিশ পাহাড়হাটিতে মহিলা যেখানে থাকতেন সেই এলাকা সিল করে দিয়েছে। মূল সড়ক থেকে মহিলার বাড়ি যাওয়ার রাস্তার মুখে বাঁশের ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে করোনা আক্রান্ত ওই মহিলার সংস্পর্শে আসা চিহ্নিত করা হচ্ছে। ইতিমধ্যেই তাঁর পরিবারের পাঁচজন এবং দুই অ্যাম্বুল্যান্স চালককে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাঁদের এদিনই বর্ধমানের গাংপুরের বেসরকারী প্রি-কোভিড হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জেলাশাসক বিজয় ভারতী এদিন জানান, মেমারির পাহাড়হাটির করোনা আক্রান্ত ওই মহিলা কলকাতার বেসরকারী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। সেখানেই তাঁর করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে। আগে দু’বার তাঁর লালার নমুনা করা হলেও রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব রায় জানিয়েছেন, প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে যাঁরা মহিলার সংস্পর্শে এসেছিলেন তাঁদের  স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে।

অন্যদিকে, সোমবার রাতে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কাটোয়া মহকুমার কেতুগ্রামের আরও এক মহিলার করোনা পজেটিভ ধরা পড়েছে। কেতুগ্রাম ১ ব্লকের বাদশাহী রোডের ধারে বসবাসকারী ওই মহিলা অ্যাম্বুল্যান্সে সহযোগীর কাজ করেন। ওই মহিলার লালার নমুনার রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরই তৎপর হয়েছে পুলিশ ও প্রশাসন। ব্লক প্রশাসনের কর্তারা পুলিশ ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে রাতেই ওই মহিলার বসতি এলাকায় যান।