তৃণমূল নেতার বাড়িতে বোমা মারার অভিযোগ

541

বর্ধমান: দোরগোড়ায় এই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। কিন্তু এখনও গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জেরবার পূর্ব বর্ধমান জেলার তৃণমূল শিবির। বৃহস্পতিবার রাতে বর্ধমানের তৃণমূল নেতা নুরুল হাসানের বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা মারার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলেরই স্থানীয় নেতা শেখ জামাল ও তাঁর দলবলের বিরুদ্ধে। ঘটনা বিষয়ে তৃণমূল নেতা তথা জেলাপরিষদ সদস্য নুরুল হাসান বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। যদিও শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তারির কোন খবর মেলেনি।

নুরুল হাসান তৃণমূলের প্রাক্তন ছাত্রনেতা। বর্তমানে তিনি পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সদস্য। তাঁর অভিযোগ গত কয়েক দিন ধরেই তাঁর বাড়িতে হামলা চালানো ও তাঁকে প্রাণে মারার একটা চক্রান্ত চলছিল। সেটা জানতে পেরে বৃহস্পতিবার তিনি বর্ধমান থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।

- Advertisement -

নুরুলবাবুর অভিযোগ, বৃহস্পতিবার রাতে তিনি ভোতারপাড়ের বাড়িতে ছিলেন না। ওই দিন রাত দেড়টা নাগাদ তাঁর ভোতাপাড়ের বাড়িতে হামলা হয়। বোমা মারা হয় তাঁর বাড়িতে। বোমার আঘাতে তাঁর বাড়ির কাঁচ ভেঙ্গে গিয়ে ঘরের ভিতরে ঢুকে যায়। কেউ ঘরে না থাকায় কারুর কোন ক্ষতি হয়নি। কাঁচ ভেঙে বোমা ঘরে ঢুকে গেলে পরিবারের কেউ না কেউ মাারাত্মক জখম হত। কারুর প্রাণহানীও হতে পারত। নুরুল হাসানের অভিযোগ, তাঁদের দলেরই কর্মী শেখ জামাল দলবল নিয়ে এই হামলা চালিয়েছে।

নুরুলবাবু বলেন, ‘বোমা বাজির ঘটনা বিষয়েও এদিন তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। এলাকার সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।‘

এই ঘটনা বিষয়ে তৃণমূলের রাজ্যের মুখপাত্র তথা পূর্ব বর্ধমানের জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি দেবু টুডু জানিয়েছেন, ‘নুরুল হাসান অভিযোগ করেছেন। গোটা ব্যাপারটা পুলিশ-প্রশাসন দেখছে। দলে কোনো সমস্যা থাকলে দল মিটিয়ে নেবে। আমাদের দলে কোন গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নেই।‘

দেবু টুডু গোষ্ঠীদ্বন্দের কথা পুরোপুরি অস্বীকার করেছেন। একইভাবে তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথের স্পষ্ট বক্তব্য, ’অভিযোগ সত্য হলে দল যেমন ব্যবস্থা নেবে, মিথ্যা হলেও কিন্তু দল ছেড়ে কথা বলবে না।‘

যদিও তৃণমূলের ব্লক সভাপতি কাকলি গুপ্তা বলেন, ‘যিনি এই সব অভিযোগ করেছেন তিনি আশলে দলেরই বদনাম করছেন। দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ে বদনাম করছেন। তবে আমরাও চাই যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে সেইসব প্রকৃত দোষীদের শাস্তি হোক। অভিযুক্ত শেখ জামাল দলের রায়ান ১ নম্বর অঞ্চলের সভাপতি। জামাল ভালো ছেলে। সে এমন কোন ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারে না। বরং তাঁর অনুগামীদের ফাঁসাতে আগেও এমন নানা চক্রান্ত করা হয়েছে।’

অভিযুক্ত শেখ জামাল জানান, তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে। নুরুল ইসলামের সঙ্গে তাঁর কোন সমস্যা নেই বলেও তিনি জানিয়েছেন।